প্রতীতি ঘোষ, হাবড়া : একদিকে করোনা অন্যদিকে হাইকোর্টের নির্দেশে পুজো মণ্ডপে দর্শনার্থীরা প্রবেশ করতে পারবেন না। তার মধ্যেও গরীব দুঃস্থদের জন্য হাবড়ার বিধায়ক তথা খাদ্যমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক এর উদ্যোগে তিন হাজার নতুন বস্ত্র উপহার দেওয়া হল।

“বাংলার পুজো বন্ধ করবার চক্রান্ত করছে কোনও একটি রাজনৈতিক দল। ” এদিন হাবড়ায় এসে এভাবেই নিজের ক্ষোভ উগড়ে দেন খাদ্যমন্ত্রী।

বুধবার হাবড়ার বিধায়ক তথা খাদ্যমন্ত্রী জ্যেতিপ্রিয় মল্লিকের উদ্দোগে হাবড়া পুরসভার ২৪ টি ওয়ার্ড এর তিন হাজার গরীব দুঃস্থদের হাতে শারদীয়া উপলক্ষে নতুন বস্ত্র তুলে দেওয়া হয়।

করোনার জেরে কাজ হারিয়েছেন অনেকেই,আবার অনেকেরই এই পরিস্থিতিতে নতুন জামা-কাপড় কেনাকাটার মতো সামর্থ্য নেই।তাই হাবরা পুরসভার ২৪ টি ওয়ার্ডের এক হাজার ছোট ছোট ছেলে মেয়েদের,এক হাজার বিধবা মহিলাদের এবং এক হাজার মায়েদের নতুন বস্ত্র দেওয়া হয় খাদ্য মন্ত্রীর পক্ষ থেকে।

এদিন মন্ত্রী বলেন,এবছর “এই করোনা পরিস্থিতিতে আমাদের পক্ষ থেকে হাবড়া পুরসভার মোট আট হাজার গরীব দুঃস্থদের নতুন বস্ত্র উপহার দেওয়া হবে। যদি প্রয়োজন হয় তাহলে আরও দেওয়া হবে।”

পাশাপাশি এদিন অনুষ্ঠানে এসে হাইকোর্টের রায়কে নিয়ে খাদ্যমন্ত্রী তার ক্ষোভ উগরে দিয়েছেন। তিনি আরও বলেন, “হাইকোর্ট যে রায় দিয়েছে সেই রায়কে আমরা মান্যতা দিচ্ছি।কিন্তু নির্দিষ্ট কোনও একটি রাজনৈতিক দল নিজেদের স্বার্থে বাংলার পুজো বন্ধ করবার জন্য হাইকোর্টে জনস্বার্থ মামলা করেছেন। তবে এর ফল ভুগতে হবে তাদের।আর তার সাক্ষী থাকবে এই বাংলা।”

স্বামীর সঙ্গে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে বস্ত্র ব্যবসাকে অন্যমাত্রা দিয়েছেন।'প্রশ্ন অনেকে'-এ মুখোমুখি দশভূজা স্বর্ণালী কাঞ্জিলাল I