স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: জুনিয়র ডাক্তারদের আন্দোলন নিয়ে মুখ্যমন্ত্রী মন্তব্য বিভ্রান্তিমূলক৷ তাই বন্ধ ঘরে কোনও আলোচনা নয়৷ মুখ্যমন্ত্রীর স্থির করবেন কোথায় আলোচনা হবে৷ তবে সেখানে সব মেডিক্যাল কলেজের প্রতিনিধি যেন উপস্থিত থাকতে পারে৷জেনারেল বডির বৈঠক শেষে জানালেন আন্দোলনরত জুনিয়র চিকিৎসকরা৷

পর পর দুদিন মুখ্যমন্ত্রীর ডাকা বৈঠকে হাজির হননি আন্দোনকারী জুনিয়র ডাক্তাররা৷ তারা স্পষ্ট জানিয়ে দেয়, নবান্নে কোনও আলোচনা হবে না৷ এনআরএসেই আসতে হবে মুখ্যমন্ত্রীকে৷ কিন্তু, রাজ্যের প্রশাসনিক প্রধানও সেখানে যেতে নারাজ৷ মুখ্যমন্ত্রী গতকালই বলেছিলেন, প্রয়োজনে রাজ্যপাল ও রাজ্যের স্বাস্থ্য সচিবের সঙ্গেও কথা বলতে পারেন আন্দোলনকারীরা৷

আরও পড়ুন: মুখ্যমন্ত্রী আসেননি, NRS-এ পরিবহর সমর্থনে উত্তরবঙ্গ থেকে এলেন চিকিৎসকরা

এরপরই শনিবার রাতে জিবি বৈঠকে বসেন এনআরএসের জুনিয়র চিকিৎসকরা৷ সেখানে কোনও সিদ্ধান্ত হয়নি৷ রবিবার সকাল ১১টা থেকেও বৈঠক শুরু হয় তাদের৷ সেখানে উপস্থিত ছিলেন রাজ্যের বিভিন্ন মেডিক্যাল কলেজের অধ্যক্ষরা৷ নবান্ন বা এনআরএস বাদে বিকল্প জায়গারও সন্ধান করা হয় সেখানে৷

জিবি বৈঠকে সিদ্ধান্ত হয় জুনিয়র চিকিৎসকরা সমস্যার সমাধান চায়৷ তবে আলোচনার জায়গা নির্বাচন করতে হবে মুখ্যমন্ত্রীকেই৷ এক্ষেত্রে বেশ কয়েকটি দাবি রয়েছে তাদের৷ যেমন, ‘রাজ্যের প্রতিটি মেডিক্যাল কলেজের প্রতিনিধি সেই বৈঠকে উপস্থিত থাকবেন৷ প্রকাশ্যে হবে আলোচনা৷ জুনিয়র চিকিৎসকদের নিরাপত্তা সংক্রান্ত সব দাবি মেনে নেবে সরকার৷’ প্রেস বিবৃতি পড়ে শোনানো হয় জুনিয়র ডাক্তারদের তরফে৷

ডাক্তারদের এই আন্দোলনে রয়েছে ‘বহিগতদের উস্কানি’৷ শনিবার বেশ কয়েকটি নামও তুলে ধরেন তিনি৷ এছাড়া নবান্নে সাংবাদিক বৈঠকের মাঝেই বেড়িয়ে যান মুখ্যমন্ত্রী৷ দাবি করেন জুনিয়র চিকিৎসকদের সঙ্গে কথা বলতে গিয়েছিলেন তিনি৷ পরে অবশ্য বিস্তারিতভাবে তা নিয়ে মুখ খোলেননি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ যার বিরোধী করা হয় জুনিয়র ডাক্তারদের তরফে৷

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের দাবি নিয়ে রবিবার জিবি বৈঠকেও আলোচনা হয়৷ প্রতিবাদে মুখর হন জুনিয়র চিকিৎসকরা৷ পরে তাদের তরফে বলা হয়, ‘‘মুখ্যমন্ত্রীর মন্তব্য বিভ্রান্তি ছড়াচ্ছে৷ যার প্রতিবাদ করছে আন্দোলনকারীরা৷’’ স্বচ্ছতা বজায় রাখতেই তাই প্রকাশ্যে আলোচনার দাবি করছেন জুনিয়র ডাক্তাররা৷ সেখানে সংবাদ মাধ্যমের হাজিরার কথাও বলা হয়েছে৷

আরও পড়ুন: সৌরভকে চাই ভারতীয় দলে, বাল ঠাকরের মুম্বইকে চমকে দিয়েছিলেন বাঙালিবাবু

শনিবার জুনিয়র ডাক্তারদের কর্মবিরতি প্রত্যাহারের আবেদন করেন মুখ্যমন্ত্রী৷ রাজ্যের সরকারি স্বাস্থ্য ব্যবস্থা সচল করার আর্জিও জানানো হয়৷ তিনি জানান সোমবার রাতের ঘটনায় অভিযুক্ত পাঁচজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে৷ সরকার সব পদক্ষেপ করেছে৷ ডাক্তারদের নিরাপত্তা সংক্রান্ত সব দাবি মেনে নেওয়া হয়েছে৷ প্রয়োজনে আলোচনার মাধ্যমে বাড়তি দাবিও মেটানো হবে৷

জুনিয়র ডাক্তারদের যুক্তি, আলোচনায় রাজি তারা৷ তবে তাদের শর্তের ভিত্তিতে স্থান নির্বাচন করতে হবে মুখ্যমন্ত্রীকেই৷ ডাক্তারদের আবেদনে নবান্নের পরবর্তী পদক্ষেপেরই উপরই এখন নির্ভর করছে সরকারি স্বাস্থ্য ব্যবস্থার সচলতার বিষয়টি৷