ফাইল ছবি

তিমিরকান্তি পতি, বাঁকুড়া: জঙ্গল মহলে শক্তি বৃদ্ধি করল বিজেপি। বাঁকুড়ার সারেঙ্গা ব্লক এলাকার নেতুরপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের দাপুটে তৃণমূল নেতা ও ঝাড়খণ্ড (আদিত্য) পার্টির ছত্রধর মাহাতোর নেতৃত্বে পাঁচশো জন অনুগামী বিজেপিতে যোগদান করেছেন বলে বিজেপি সূত্রে দাবি করা হয়েছে।

বিজেপি সূত্রে পাওয়া খবরে জানা গিয়েছে, বাঁকুড়া লোকসভা কেন্দ্রের দলীয় প্রার্থী ডাঃ সুভাষ সরকার এদিন জঙ্গল মহলে ভোট প্রচারে যান। সেই ভোট প্রচার কর্মসূচীর মাঝেই সারেঙ্গার পিরলগাড়ি মোড়ে এক পথ সভায় তৃণমূল ও ঝাড়খণ্ড পার্টির ওই দুই নেতা তাদের অনুগামীদের নিয়ে বিজেপিতে যোগ দেন। এদিন তাদের হাতে দলীয় পতাকা তুলে দেন দলের রাজ্য সহ সভাপতি ও বাঁকুড়া লোকসভা কেন্দ্রের প্রার্থী ডাঃ সুভাষ সরকার।

এক সময়ের ‘লাল দূর্গ’ হিসেবে পরিচিত ও ২০১৩-র পঞ্চায়েত ভোট পরবর্তী সময়ে বাঁকুড়ার এই জঙ্গল মহল শাসক তৃণমূলের শক্ত ঘাঁটিতে পরিণত হয়। কিন্তু ২০১৮ সালের পঞ্চায়েত ভোটের ফলাফলের ভিত্তিতে এখানে বিজেপির দাপট বাড়তে থাকে। সিমলাপালের বিক্রমপুর, সারেঙ্গার বিক্রমপুর, রাইপুরের ঢেকো ও মণ্ডলকূলী গ্রাম পঞ্চায়েত দখল করে তারা। এই পরিস্থিতিতে তৃণমূল ও ঝাড়খণ্ডের দুই নেতা ও তাদের অনুগামীদের নিজেদের দলে টানতে পেরে যথেষ্টই উৎফুল্লিত বিজেপি নেতৃত্ব।

এই প্রসঙ্গে বিজেপি প্রার্থী ডাঃ সুভাষ সরকার বলেন, শাসক দলের প্রতি বীতশ্রদ্ধ হয়েই স্বতঃস্ফূর্তভাবে মানুষ তাদের দলে আসছেন। আগামী দিনে আরও অনেক তৃণমূল নেতা কর্মী তাদের দলে আসবেন বলে এদিন তিনি দাবি করেন।