কলকাতা: নির্বাচনে তারকা প্রার্থী দাঁড় করিয়ে রাজনৈতিক দলগুলির চমক দেওয়াটা এখন একটা ট্রেন্ড৷ এরাজ্যে এই প্রবণতা ক্রমশ বাড়ছে৷ তাপস পাল, শতাব্দী রায়, চিরঞ্জিত, দেবশ্রী রায়, মুনমুন সেন,সন্ধ্যা রায় থেকে দেব, বাবুল সুপ্রিয়-এখন এরা সবাই ‘জনপ্রতিনিধি’৷ এবারের নির্বাচনেও  সোহম, রূপা, লকেটের  মতো  টলিউডের বেশ কয়েকটা পরিচিত মুখ প্রার্থী হয়েছেন ৷  তবে সাধারণ ভোটারদের অনেকেরই অভিযোগ, নির্বাচনে জেতার পর তারকা প্রার্থীদের নাকি এলাকায় দেখা যায় না৷ এমনকি সংসদ কিংবা বিধানসভাতেও তাঁদের উপস্থিতির হার খুব কম থাকে৷ উপস্থিত থাকলেও তাঁরা সক্রিয় ভূমিকা পালন করেন না৷ এবিষয়ে কী বলছেন টলি অভিনেত্রী জুন মালিয়া?

juneটলি পাড়ায় সাধারণত শাসক দলের ঘনিষ্ট বলেই পরিচিত জুন মালিয়া৷ তৃণমূলের একাধিক অনুষ্ঠানে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের পাশে তাঁকে দেখা গিয়েছে বহুবার৷ তাই স্বাভাবিকভাবেই জুন এই অভিযোগ মানতে নারাজ৷ কারন যাঁদের বিরুদ্ধে এই অভিযোগ তাঁরা অধিকাংশই তৃণমূলের টিকিটে জিতেছেন৷ তবে জুন পুরোপুরি যে অভিযোগ উড়িয়ে দিয়েছে এমনও নয়৷ জুন বললেন, তারকাদের বিরুদ্ধে এইরকম অভিযোগ ওঠে এটা ঠিকই কিন্তু সব সবাই সমান নন৷ আমি শুনেছি, সন্ধ্যা রায়, মুনমুন সেন এরা নিজেদের এলাকায় যান৷ কাজ করেন৷ সংসদেও এদের দেখা যায়৷ কিন্তু দেবশ্রী রায় কিংবা দেব-এদের ব্যাপারে কী বলবেন? খুব সযন্তে এই প্রশ্নের উত্তর এড়িয়ে জুন বললেন, দেখুন এদের ব্যাপারে আমি কিছু বলব না৷

অনেকদিনধরেই  গুঞ্জন চলছিল যে এবার বিধানসভা নির্বাচনে তৃণমূলের টিকিটে দাঁড়াচ্ছেন জুন মালিয়া৷ কিন্তু শেষপর্যন্ত তা হয়নি৷ জুনকে এবিষয়ে জিজ্ঞাসা করা হলে তিনি বললেন, আমাকে নিয়ে সবসময়ই এই গুজব ছড়ায়৷ এর আগেও ছড়িয়েছিল৷ এর কারণ আমি জানি না৷ প্রস্তাব এলে ভবিষ্যতে কি প্রার্থী হবেন? উত্তরে জুন বললেন, কাউকে ভালো লাগতে পারে৷ কিন্তু সক্রিয় রাজনীতিতে আমার কোনও ইন্টারেস্ট নেই৷ তাই প্রার্থী হওয়ার প্রশ্নই নেই৷ তবে জুন মুখে যাই বলুক না কেন, এর  সঠিক উত্তর অবশ্য সময়ই দেবে৷

পচামড়াজাত পণ্যের ফ্যাশনের দুনিয়ায় উজ্জ্বল তাঁর নাম, মুখোমুখি দশভূজা তাসলিমা মিজি।