স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: যাদবপুর ক্যাম্পাসে অচলাবস্থা নিয়ে এবার কলকাতা হাইকোর্টে জনস্বার্থ মামলা দায়ের করা হল৷ আগামী শুক্রবার এই মামলার শুনানি হবে বলে জানা গিয়েছে৷

পড়ুন: যাদবপুরে প্রবেশিকা বিতর্কে সিদ্ধান্তের ভার কর্মসমিতিকে দিলেন রাজ্যপাল

সূত্রের খবর, যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রবেশিকা পরীক্ষা ফেরানোর দাবিতে গত ৫ জুলাই থেকে লাগাতার বিক্ষোভ কর্মসূচিতে অংশগ্রহণ করেছেন ছাত্রছাত্রীরা৷ ফলে যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের ঐতিহ্য ক্ষুন্ন হয়েছে । বিশ্ববিদ্যালয়ের পঠনপাঠনের ক্ষতি হচ্ছে এবিষয়ে অবিলম্বে হাইকোর্টের হস্তক্ষেপ দাবি করে মঙ্গলবার জনস্বার্থ মামলা দায়ের করলেন আইনজীবী রমা প্রসাদ সরকার ।

তাঁর দাবি, ২০১৪ সালে যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয় কে নিয়ে একটি জনস্বার্থ মামলা পরিপ্রেক্ষিতে তৎকালীন প্রধান বিচারপতি মঞ্জুলা চেল্লুর ডিভিশন বেঞ্চ নির্দেশ দিয়েছিলেন একজিকিউটিভ কমিটি যে সিদ্ধান্ত নেবেন সেটাই মেনে নিতে হবে ছাত্রছাত্রীদের। পাশাপাশি যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ এবং পুলিশকে নির্দেশ দিয়েছিলেন যে বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যাম্পাসের মধ্যে কোনওরকম ধর্ণা , বিক্ষোভ কর্মসূচি বা কোনওরকম ছাত্রছাত্রীরা আন্দোলন করতে না পারেন সেটা নিশ্চিত করবেন ।

পড়ুন: প্রবেশিকা বিতর্কে যাদবপুরের কর্মসমিতির বৈঠক আজ

আন্দোলন করার থাকলে ছাত্রছাত্রীরা ক্যাম্পাসের বাইরে করতে পারেন । কিন্তু আইনজীবী বক্তব্য হাইকোর্টের কোন নির্দেশই মানা হচ্ছে না । তাঁর দাবি যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রছাত্রীরা আন্দোলনের ফলে এখানে পড়তে আসা অন্যান্য ছাত্রছাত্রীরা আতঙ্কিত হয়ে পড়ছেন । এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের পঠন পাঠানের পরিবেশ নষ্ট হচ্ছে । সারা পৃথিবী জুড়ে যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের সুনাম রয়েছে, এই বিক্ষোভের কারণে সেই সুনাম নষ্ট হচ্ছে তাই প্রধান বিচারপতির এবিষয়ে হস্তক্ষেপ প্রয়োজন৷

যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রবেশিকা পরীক্ষা এবছরের জন্য বাতিল করে মেধা তালিকার ভিত্তিতে ছাত্রছাত্রীরা ভর্তি হতে পারবেন৷ একজিকিউটিভ কমিটির এই সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে গত ৫ই জুলাই থেকে এখনও পর্যন্ত ছাত্রছাত্রীরা বিক্ষোভ করছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যাম্পাসের মধ্যে । তাঁদের অভিযোগ প্রবেশিকা পরীক্ষা বাতিল হলে প্রায় ১৫ হাজার ছাত্রছাত্রীর ভবিষ্যত নষ্ট হয়ে যাবে । আর তাই তাঁরা আন্দোলনমুখি হয়েছেন । সেই কারণে আসরে নামতে হয়েছে শিক্ষামন্ত্রী থেকে রাজ্যপালকেও ।