স্টাফ রিপোর্টার, বিষ্ণুপুর: আর্থিক দুর্নীতি, সারদা-নারদ সহ নানাবিধ অভিযোগ রয়েছে তৃণমূল কংগ্রেস পরিচালিত সরকারের বিরুদ্ধে। এই সবকিছুর উর্ধে উঠে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় পরিচালিত সরকারের বিরুদ্ধে মারাত্মক অভিযোগ করলেন বিজেপি নেতা জয় বন্দ্যোপাধ্যায়।

আরও পড়ুন- বই আকারে প্রকাশিত হল মমতার বাণী

বৃহস্পতিবার বাঁকুড়া জেলার বিষ্ণুপুরে এক দলীয় সভায় হাজির ছিলেন ভারতীয় জনতা পার্টির কেন্দ্রীয় নেতা জয় বন্দ্যোপাধ্যায়। সেখানে নানাবিধ ইস্যু নিয়ে রাজ্যের তৃণমূল সরকারকে আক্রমণ করেন তিনি। যার মধ্যে তৃণমূল সরকারের নানাবিধ দুর্নীতি সহ বিভিন্ন বিষয় উঠে এসেছিল জয়ের মুখে।

সেই আক্রমণের একটি হাতিয়ার হিসেবেই বাংলার যুবসমাজের প্রেমকে তুলে নিয়ে আসেন জয় বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি অভিযোগ করেছেন যে মমতা জমানায় বাংলার যুবক-যুবতীরা প্রেম করতে ভুলে গিয়েছে। তাঁর কথায়, “আগে আমি আগে রাস্তাঘাটে অনেক ছেলেমেয়েদের প্রেম করতে দেখতাম। কিন্তু এখন আর দেখতে পায় না।”

‘মমতা জামানায় প্রেম ভুলেছে বাঙালি’

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় পরিচালিত সরকারের বিরুদ্ধে মারাত্মক অভিযোগ করলেন বিজেপি নেতা জয় বন্দ্যোপাধ্যায়। তাঁর কথায়, “আগে আমি আগে রাস্তাঘাটে অনেক ছেলেমেয়েদের প্রেম করতে দেখতাম। কিন্তু এখন আর দেখতে পায় না।”https://www.kolkata24x7.com/joy-banerjee-attacks-mamata-on-love-in-bengalis.html

Kolkata24x7 यांनी वर पोस्ट केले गुरुवार, ३१ जानेवारी, २०१९

বাঙালির এই প্রেম বিমুখতার জন্য মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকারকে কাঠগড়ায় তুলেছেন বিজেপি নেতা জয়। এই বিষয়ে তাঁর যুক্তি, “ছেলেমেয়েরা প্রেম করবে কী করে? প্রথমে লেখাপড়া শেখাতে অভিভাবকদের হাজার হাজার টাকা খরচ হয়ে যাচ্ছে। তারপরে চাকরি পেতে লক্ষ লক্ষ টাকা খরচ করতে হচ্ছে।” একই সঙ্গে তিনি আরও বলেছেন, “লেখাপড়া শিখে চাকরি অএতেই বিপুল টাকা খরচ করতে হচ্ছে। এত খরচ করার পরে মাসিক বেতন পাচ্ছে দুই থেকে চার হাজার টাকা।” জয় আরও জানিয়েছেন যে চাকরি না জোটাতে পারলে ভরসা চপের দোকান।

এই অবস্থায় দাঁড়িয়ে ভাঙালি যুবকদের জীবনে প্রেম খুবই প্রতিকূল একটি বিষয় বলে দাবি করেছেন জয়। তিনি বলেছেন, “একটা প্রেমিকা জটাতে গেলেও তাকে ফুচকা খাওয়াতে হবে। এই উপার্জনে প্রেমিকাদের ফুচকা খাওয়াতেও পারবে না প্রেমিকেরা। তাহলে প্রেমটা হবে কী করে?” এই প্রতিকূলতা থেকে মুক্তি পেতেই বাংলার যুব সম্প্রদায় বিজেপির দিকে ঝুঁকছে বলে দাবি করেছেন জয়। বাংলায় মোদী সরকার প্রতিষ্ঠা হলে বাংলার যুবকেরা প্রেমিকাদের নিয়ে রেস্টুরেন্টে খাওআঁতে পারবে বলে প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন বিজেপি জাতীয় নেতা জয় বন্দ্যোপাধ্যায়।

আরও পড়ুন- আমার আাঁকা ছবি, বই পাঠিয়ে দেব ওদের: মমতা

রাজনীতিতে আসার আগে জয়বাবু ছিলেন অভিনেতা। বাংলা ছবির রোম্যান্টিক হিরোর চরিত্রে বেশ জনপ্রিয় ছিলেন জয় বন্দ্যোপাধ্যায়। এখনও তার অভিনীত ছবির সংলাপ বা গানের জনপ্রিয়তা রয়েছে। বিশেষ করে জয় বন্দ্যোপাধ্যায় অভিনীত হীরক-জয়ন্তী ছবির সংলাপ ‘আই লাভ ইউ’ এবং ‘বহুদূর থেকে এ কথা’ গান বেশ জনপ্রিয়। তবে সেই ছবিতে নায়ক গাঁয়ের ছেলে হীরু চাকরি করতো না, প্রেমিকাকে নিয়ে ফুচকা খেতেও তাকে দেখা যায়নি।