মাদ্রিদ: আচমকাই বিপাকে ফুটবল গ্রহের তিন নক্ষত্র৷ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো, মেসুত ওজিল ও জোসে মোরিনহোরা এখন গুরুতর সমস্যায়৷লিওনেল মেসি, নেইমারদের পর এবার রোনাল্ডোদের বিরুদ্ধে উঠেছে বহু টাকার কর ফাঁকি দেওয়ার অভিযোগ৷

আগামী ২১দিন ধরে তদন্ত চলবে রোনাল্ডোদের বিরুদ্ধে। তারপরেই প্রকাশ্যে আসবে যে, আদৌ রোনাল্ডো-ওজিলরা কর ফাঁকি দিয়েছেন কিনা৷রোনাল্ডো এবং মোরিনহো কিন্তু সরাসরি কর ফাঁকির অভিযোগ উড়িয়ে দিয়েছে৷

একটি বা দু’টি নয় ইউরোপের ডজনখানেক সংবাদমাধ্যমে একযোগে এই খবর প্রকাশিত হয়েছে৷বার্সেলোনায় কর সমস্যার কথা নতুন কিছু নয়৷কিন্তু এবার রিয়াল মাদ্রিদও কি সেই পথে নাম লিখিয়েছে ? এই প্রশ্ন উঠতেই পারে৷কারণ রিয়ালের মহাতারকা সিআর সেভেন ছাড়াও ওজিল ও মোরিনহো দু’জনেই কিন্তু রিয়াল মাদ্রিদের প্রাক্তন কর্মচারী৷

রোনাল্ডো সুইৎজারল্যান্ড ও ব্রিটিশ ভার্জিন আইল্যান্ডসে ১৫০ মিলিয়ন ইউরো লুকিয়ে রেখেছেন বলে সন্দেহ করা হচ্ছে৷অন্যদিকে ম্যাঞ্চেস্টার ইউনাইটেডের ম্যানেজার মোরিনহোর বিরুদ্ধেও ব্রিটিশ ভার্জিন দ্বীপপুঞ্জে ১২ মিলিয়ন ইউরো লুকিয়ে রাখার অভিযোগ উঠেছে৷এবার আসা যাক ওজিলের কথায়৷তিনি ২০১৩-তে রিয়াল থেকে আর্সেনালে এসেছিলেন ৪২ মিলিয়ন পাউন্ডে৷ওজিলের আর্থিক লেনদেন সংক্রান্ত কাজ করে তাঁরই কোম্পানি ওজিল মার্কেটিং৷২০১৪ থেকেই এই কোম্পানির আয়-ব্যায় সংক্রান্ত আর্থিক অসঙ্গতি চোখে পড়েছে৷ফলে স্বাভাবিক ভাবেই নাম জড়িয়েছে ‘কিং অফ অ্যাসিস্ট’ ওজিলের৷এখন দেখার শেষ পর্যন্ত রোনাল্ডোদের ভাগ্যে কী অপেক্ষা করে আছে৷