পোর্ট এলিজাবেথ: মূলত ব্যাটসম্যান হলেও দলের প্রয়োজনো জো রুট পার্টটাইম স্পিন বোলিং করেন৷ টেস্টে ২৮টি, ওয়ান ডে ক্রিকেটে ২২টি ও আন্তর্জাতিক টি-২০ ম্যাচে ৬টি উইকেট রয়েছে ইংল্যান্ডের টেস্ট অধিনায়কের৷ এহেন রুট পোর্ট এলিজাবেথের সেন্ট জর্জেস পার্কে দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে সিরিজের তৃতীয় টেস্টে কেরিয়ারের সেরা বোলিং করেন৷ দ্বিতীয় ইনিংসে তিনি ৪টি উইকেট দখল করেন৷

আরও পড়ুন: এবার কোচের ভূমিকায় অবতীর্ণ হচ্ছেন সচিন

রুট আউট করেন পিটার মালান, ডু’প্লেসি, ভ্যান ডার দাসেন ও কুইন্টন ডি’কককে৷ এমন তারকা ব্যাটসম্যানদের সাজঘরের পথ দেখানোর পরেও ওই ম্যাচেই ব্রিটিশ অধিনায়র একটি লজ্জার রেকর্ড গড়ে বসেন৷ নতুন বল নেওয়ার পর ইনিংসের ৮২তম ওভারে বোলিং করার দায়িত্ব নিজের হাতে তুলে নেন রুট৷ প্রতিপক্ষ ব্যাটসম্যান ছিলেন কেশব মহারাজ৷ ওই একটি ওভারেই রুট খরচ করেন ২৮ রান, যা টেস্টের ইতিহাসে যুগ্মভাবে সর্বোচ্চ৷

আরও পড়ুন: শাহবাজের হ্যাটট্রিকে হায়দরাবাদকে ফলো-অন করাল বাংলা

ওভারের প্রথম তিনটি বলে তিনটি চার মারেন মহারাজ৷ পরের দু’টি বলে জোড়া ছক্কা হাঁকান তিনি৷ রুটের শেষ বল ব্যাটসম্যান ও উইকেটকিপারের নাগাল এড়িয়ে বাউন্ডারিতে চলে যায়৷ অর্থাৎ ৪টি বাই-রান যোগ হয় দক্ষিণ আফ্রিকার খাতায়৷ সব মিলিয়ে ওভারে ২৮ রান ওঠে৷ টেস্টের এক ওভারে এর থেকে বেশি রান তুলতে পারেনি কোনও দলই৷

আরও পড়ুন: গতিতে আখতারকেও ছাপিয়ে গেলেন ‘নতুন মালিঙ্গা’

একা রুট নন, এর আগে টেস্টের এক ওভারে ২৮ রান খরচ করার নজির রয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকার রবিন পিটারসন ও ইংল্যান্ডের জিমি অ্যান্ডারসনের৷ পিটারসন ২০০৩-০৪ মরশুমে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে এমন লজ্জার নজির গড়েছিলেন৷ প্রতিপক্ষ ব্যাটসম্যান ছিলেন ব্রায়ান লারা৷ ২০১৩-১৪ মরশুমে অ্যান্ডারসনের ওভারে ২৮ রান তুলেছিলেন অস্ট্রেলিয়ার জর্জ বেইলি৷