রাজ্য সরকারি কর্মী
রাজ্য সরকারি কর্মী (ফাইল ছবি)

কলকাতাঃ  জলপাইগুড়ি টে চাকরি প্রাথীদের জন্য সুখবর। প্যারা মেডিক্যাল ,মেডিক্যাল স্টাফ সহ বেশ কিছু পদে কর্মী নিয়োগের জন্য ইতিমধ্যে জারি করা হয়েছে বিজ্ঞপ্তি আগ্রহী প্রার্থীদের দ্রুত আবেদন করতে জানানো হয়েছে। আবেদনের শেষ তারিখ ২৬.৮.২০২০।

lab technician- শূন্য পদ- ৩।

শিক্ষাগত যোগ্যতা- মেডিক্যাল ল্যাবরেটরি টেকনোলোজি নিয়ে স্নাতক হতে হবে। অথবা ডিপ্লোমা থাকতে হবে। পাশপাশি কম্পিউটার জানতে হবে। এছাড়া এক বছরের কাজের অভিজ্ঞতা থাকতে হবে। বয়স-৬০ বছরের মধ্যে । বেতন- ১৩ হাজার মাসিক ।

facility level quality manager-  শূন্যপদ-১। শিক্ষাগত যোগ্যতা- এমবিবিএস/ডেন্টাল/ আয়ুশ/ নার্সিং নিয়ে পড়াশোনা করতে হবে। এছাড়া ইংরাজি টে সাবলীল হতে হবে।এছাড়া এক বছরের কাজের অভিজ্ঞতা থাকতে হবে। বয়স-৪০ বছরের মধ্যে । বেতন- ৩৫ হাজার মাসিক ।

চাকরি
চাকরির খবর

disrict consultant and quality monitoring- শূন্যপদ-১। শিক্ষাগত যোগ্যতা- statistics নিয়ে ডিগ্রি থাকতে হবে। এছাড়া ইংরাজি এবং কম্পিউটারে দক্ষ হতে হবে। কাজের অভিজ্ঞতা থাকতে হবে। বয়স-৪০ বছরের মধ্যে- বেতন- ৩০ হাজার মাসিক ।

physiotherapist/ rehabilitation worker – শূন্যপদ-৩। শিক্ষাগত যোগ্যতা- ফিজিওথেরাপি নিয়ে স্নাতক হতে হবে। ২ বছরের কাজের অভিজ্ঞতা থাকতে হবে। বয়স-৪০ বছরের মধ্যে । বেতন-১৫ হাজার মাসিক ।

এছাড়াও বেশ কিছু পদে নিয়োগের জন্য বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়েছে। আগ্রহী প্রার্থীদের বিস্তারিত জানার জন্য www.jalpaigurihealth.কম এই ওয়েবসাইটে চোখ রাখতে হবে। প্রার্থীদের রেজাল্ট, অভিজ্ঞতা , এবং পরীক্ষা নেওয়ার পর বাছাই করা হবে।

আবেদন ফি বাবদ ১০০ টাকা দিতে হবে প্রার্থীদের। সন্রক্ষিত প্রার্থীদের জন্য ৫০ টাকা দিতে হবে আবেদন ফি বাবদ। প্রার্থীদের প্রয়োজনীয় কাগজপত্রের সঙ্গে আবেদনপত্র cmoh and secretary district health and family welfare samiti, jalpaiguri, cmoh office 1st floor district health and administrative building hospital para jalpaiguri- 735101

ইন্টারনেট থেকে এই প্রতিবেদন লেখা হয়েছে। আবেদনের আগে অবশ্যই ভালো করে সংশ্লিষ্ট ওয়েবসাইট দেখে নেবেন। এছাড়া প্রয়োজনে অফিসে যোগাযোগ করে নেবেন। কীভাবে আবেদন বিস্তারিত ভাবে আরও জেনে নেওয়ার চেষ্টা করবেন।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

কোনগুলো শিশু নির্যাতন এবং কিভাবে এর বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানো যায়। জানাচ্ছেন শিশু অধিকার বিশেষজ্ঞ সত্য গোপাল দে।