শ্রীনগর: শীতকালে উপত্যকায় বড়সড় হামলার ছক কষছে জঙ্গিরা। গত মাসেই এই নিয়ে কেন্দ্রকে সতর্ক করেছিল ভারতের গোয়েন্দা সংস্থা। শনিবার কাশ্মীরের কুপওয়ারায় পাঁচ লস্কর-ই-তৈবা জঙ্গিকে গ্রেফতার করল জম্মু-কাশ্মীর পুলিশ। ধৃতদের কাছ থেকে উদ্ধার হয়েছে অস্ত্র এবং প্রচুর পরিমাণে গুলি।
উত্তর কাশ্মীরের বারমুলা জেলার কুপওয়ারা থেকে পুরোদস্তর লস্কর-ই-তৈবার পোশাকেই হাতেনাতে গ্রেফতার করে পুলিশ।

ধৃত জঙ্গিদের নাম হিলাল আহমেদ,সাহিল নাজির, এবং পিরজাদা মহম্মদ জাহির ওই অঞ্চলের সাধারণ মানুষদের হুমকি দিত বলে জানায় পুলিশ। ধৃতদের কাছ থেকে অস্ত্র-সহ উদ্ধার হয়েছে বহু নিষিদ্ধ জঙ্গি সংগঠনের পোস্টার।

হুমকি পোস্টারের মাধ্যমে উপত্যকায় সন্ত্রাস জিইয়ে রাখত বলেও দাবি করেছে পুলিশ। লস্কর-ই-তৈবার তিন সদস্য ছাড়াও গ্রেফতার করা হয়েছে দুই সহযোগী উলফত বশির এবং আইজাজ আহমেদকেও।
গত ২৩শে অক্টোবর সেনার সঙ্গে গুলির লড়াইয়ে নিহত হয় আল-কায়দার জম্মু-কাশ্মীর শাখার প্রধান হামিদ লেলহারি ও তার দুই সঙ্গী। আল-কায়দার জম্মু-কাশ্মীর শাখা আনসার গাজওয়াত-উল-হিন্দ (এজিএইচ)-এর প্রাক্তন প্রধান জাকির মুসার উত্তরসূরি ছিল লেলহারি।

অবন্তিপোরার রাজোপোরা গ্রামে দুই সঙ্গী নিয়ে আত্মগোপন করে ছিল লেলহারি। গোপন সূত্রে খবর পেয়ে ওইদিন সন্ধ্যায় রাজপোরা গ্রামে অভিযান চালায় তারা। গোটা গ্রামটিকে ঘিরে ফেলে তল্লাশি অভিযানের সময় তাদের লক্ষ্য করে গুলি চালাতে থাকে লেলহারি ও তার সঙ্গীরা। পাল্টা জবাব দেয় সেনাও। দু’পক্ষের মধ্যে ব্যাপক গুলির লড়াই চলে। সেনা সূত্রে খবর, সেই সংঘর্ষেই লেলহারি ও তার দুই সঙ্গী নিহত হয়। জম্মু-কাশ্মীর পুলিশ জানায়, জঙ্গিরা যেখানে লুকিয়ে ছিল সেখান থেকে প্রচুর অস্ত্র এবং গোলাবারুদ উদ্ধার হয়েছে। এলাকায় আর কোনও জঙ্গি আত্মগোপন করে আছে কি না, তা খতিয়ে দেখতে চিরুনি তল্লাশি শুরু করে সেনা। এই তল্লাশির মাঝেই বারবার জঙ্গি হামলা ঘটেছে উপত্যকায়।

লেলহারির মৃত্যুর পরেই কাশ্মীরে অশান্তি ছড়াতে রীতিমত তৎপর হয়ে ওঠে পাক মদতপুষ্ট জঙ্গি সংগঠনগুলি। চলতি মাসেই একের পর এক গ্রেনেড হামলার নিশানা হয় সোপোর লালচক,পুলওয়ামা-সহ জম্মু-কাশ্মীরের বিভিন্ন এলাকা।

কাশ্মীরের কুলগামে পাঁচ বাঙালি শ্রমিককে নির্বিচারে গুলি করে খুন করে জঙ্গিরা। কাশ্মীরে সন্ত্রাস কায়েম করতে মরিয়া জঙ্গিদের বিরুদ্ধে কড়া ভাবেই ব্যবস্থা নেওয়া হবে জানিয়েছিল প্রশাসন। সেনার তরফ থেকেও বাড়তি সুরক্ষা নেওয়া হয়েছে বলে দাবি করা হয়। এর মাঝেই এই পাঁচ জঙ্গিকে গ্রেফতার সাফল্য হিসাবেই দেখছে জম্মু-কাশ্মীর পুলিশ।

পপ্রশ্ন অনেক: একাদশ পর্ব

লকডাউনে গৃহবন্দি শিশুরা। অভিভাবকদের জন্য টিপস দিচ্ছেন মনোরোগ বিশেষজ্ঞ।