শ্রীনগর: সোমবার পঞ্চম দফার ভোটে উত্তপ্ত হয়ে উঠল কাশ্মীর সীমান্ত৷ কৃষ্ণা ঘাঁটি সেক্টরে সংঘর্ষ বিরতি চুক্তি লঙ্ঘন করল পাকিস্তান৷ সোমবার বিকেলে পুঞ্চ জেলায় গুলির শব্দ শোনা যায়৷ ভারতীয় সেনা সূত্রে খবর, বিনা প্ররোচনায় গুলি চালিয়েছে পাক সেনা৷ মর্টার হামলা চালানো হয়েছে, চলেছে গুলি৷

পালটা উত্তর দেয় ভারতীয় সেনাও৷ চলে গুলির লড়াই৷ গতকাল অর্থাৎ রবিবারই পাক সেনার গুলিতে পুঞ্চ জেলার দেঘওয়ার গ্রামের নাগরিক আহত হন৷

এপ্রিল মাসেই জম্মু কাশ্মীরের পুঞ্চ সেক্টরে চলে ভারি গুলি বর্ষণ৷ নিয়ন্ত্রণরেখা বরাবর এই গুলি বর্ষণ চলে৷ প্রতিরক্ষা মন্ত্রকের মুখপাত্র লেফটেন্যান্ট কর্ণেল দেবেন্দ্র আনন্দ জানান পাকিস্তানই প্রথম গুলি ছোঁড়া শুরু করে৷ বিনা প্ররোচনায় গুলি চালায় তারা৷ সকাল সাড়ে সাতটা থেকে ভারতীয় সেনা ছাউনি লক্ষ্য করে গুলি চলে৷ মানকোটে ও কৃষ্ণাঘাঁটি সেক্টরে গুলি বর্ষণ শুরু হয়৷

আরও পড়ুন : ভিডিও ক্লিপ দেখেই মিনি প্লেন তৈরি করলেন পাক পপকর্ন বিক্রেতা

জানা গিয়েছে, পাকিস্তানি সেনা মর্টার হানাও চালায়৷ এছাড়া ছোট ছোট আগ্নেয়াস্ত্র দিয়ে ভারতীয় সেনার ওপর হামলা চালায়৷ প্রত্যুত্তর দেয় ভারতীয় সেনাও৷

এর আগে, শ্রীনগরের সুতসু গ্রামে জঙ্গি উপস্থিতির খবর পেয়ে অভিযানে নামে নিরাপত্তা রক্ষীরা৷ সেখানেই জঙ্গিদের সঙ্গে সংঘর্ষ বাধে তাদের৷ জঙ্গিরা গুলি ছুঁড়লে তাদের পাল্টা জবাব দেওয়া হয়৷ আর এই এনকাউন্টার পর্বেই খতম হয় এক জঙ্গি৷

আরও পড়ুন : ৪ মহিলা এটিএস অফিসারের হাতে ধৃত কুখ্যাত অপরাধী

পাশাপাশি, সোপিয়ান থেকেও গুলির লড়াইয়ের খবর মেলে৷ ওই জায়গা ঘিরে ফেলে নিরাপত্তাবাহিনী। এলাকায় জঙ্গিদের লুকিয়ে থাকার খবর পাওয়ার পর তল্লাশি অভিযান শুরু করে নিরাপত্তা বাহিনী। অন্যদিকে এলাকায় তল্লাশি অভিযান শুরু হতে দেখেই গুলি চালাতে শুরু করে জঙ্গিরা। শুরু হয়ে যায় গুলির লড়াই। এলাকায় তল্লাশি অভিযান চলে৷