শ্রীনগরঃ   পাকিস্তান রেঞ্জার্সের ছোঁড়া মিসাইলের আঘাতে শহিদ ভারতীয় সেনার জুনিয়ার কমিশনার অফিসার পদ মর্যাদার একজন অফিসার এবং বর্ডার সিকিউরিটি ফোর্সের হেড-কনস্টেবল।  পাকিস্তান রেঞ্জার্সের গুলিতে আহত আরও এক বিএসএফ জওয়ান।  যদিও তাঁর অবস্থা স্থিতিশীল বলে জানা গিয়েছে।  এই ঘটনার পরে নড়েচড়ে বসেছেন সেনা আধিকারিকরা।  ঘটনার পরেই জরুরি বৈঠকে বসেন সেনা আধিকারিকরা।

প্রসঙ্গত, আজ সোমবার সকাল থেকে সকাল থেকে পুঞ্চ সেক্টরে একেবারে ভারতীয় সেনা ছাউনি লক্ষ্য করে হামলা চালায় পাকিস্তান।  ছোঁড়া হয় একের পর এক মিসাইল, গ্রেনেড।  আর তা লেগেই গুরুতর আহত হয় ভারতীয় সেনার  নায়েক সুবেন্দার পরমজিত সিং এবং বিএসএফের প্রেম সাগর।  রীতিমত আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাঁদের হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে সেখানে ডাক্তারদের মৃত বলে ঘোষণা করেন।  ঘটনার পরে পাকিস্তান সেনা ছাউনি লক্ষ্য করে হেভি শেলিং করে ভারতীয় সেনা।  পালটা মিসাইল, গ্রেনেড ছোঁড়া হয়। সেনার দাবি, পালটা মারে পাকিস্তান সেনার বেশ কয়েকটি সেনা ছাউনি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.