টেলিকম দুনিয়ায় দিনে দিনে অপ্রতিরোধ্য হয়ে উঠেছে জিও। ইন্টারনেট জগতে এক বিপ্লব এনেছিল মুকেশ আম্বানির সংস্থা। তবে সমানে সমানে না হলেও বেশ কড়া টক্কর দিয়েছে ভোডাফোন আইডিয়া ও এয়ারটেল। তবে অন্য সঙ্গস্থাগুলিকে কয়েক গোল দিয়েছে জিও।

আসুন দেখে নেওয়া যাক, ডেটা অফারে কে বেশি অফার দিচ্ছে। কোন কোম্পানির কোন প্ল্যান নিলে আপনার বেশি লাভ ? প্রত্যেক কোম্পানিই ৩৫০ টাকার কমে ডেটা অফার দিচ্ছে।

জিও-র প্ল্যান: jiO দিচ্ছে দৈনিক ৩ জিবি ডেটা। সঙ্গে মিলবে আনলিমিটেড লোকাল/এসটিডি কলের সাথে রোজ ১০০ এসএমএস। প্ল্যানটির বৈধতা থাকছে ২৮ দিন। এর দাম থাকছে ২৯৯ টাকা।

এয়ারটেল প্ল্যানঃ এয়ারটেলের মাসিক প্ল্যানেও দেওয়া হচ্ছে ৩ জিবি ডেটা। সঙ্গে আনলিমিটেড ভয়েস কল ও ১০০ এসএমএসের সুবিধা থাকলেও দাম বেশি থাকছে এই প্ল্যানের। এয়ারটেলের এই প্ল্যানের দাম ৩৪৯ টাকা।

ভোডাফোন প্ল্যান: ভোডাফোনেও দিচ্ছে একই ডেটা অফার। FUP লিমিট ছাড়াই দেওয়া হচ্ছে আনলিমিটেড কলের সুযোগ। ভোডাফোনের এই প্ল্যানের বৈধতা ২৮ দিন। সঙ্গে ১০০ এসএমএস ও পাওয়া যাবে।

এছাড়া ক্রেতাদের জন্য জিও নিয়ে এল এক নতুন অফার। মাত্র ১৪৯ টাকায় জিও ক্রেতাদের জন্য নিয়ে এসেছে এক নতুন প্রিপেড প্ল্যান। তবে এই প্ল্যানের সময়সীমা ২৮ দিন থেকে কমিয়ে ২৪ করা হয়েছে। এই প্ল্যানে জিও থেকে অন্যান্য নেটওয়ার্কে ৩০০ মিনিট পর্যন্ত কথা বলা যাবে এবং জিও থেকে অন্য জিও তে ফোন করলে কথা বলা যাবে সম্পূর্ণ বিনামূল্যে।

আবির্ভাবের পর থেকেই জিও একের পর এক ছক্কা হাঁকিয়ে মোবাইল নেটওয়ার্কের দুনিয়াতে এক নতুন নবজাগরণের সূচনা করেছিল। অন্যান্য প্রতিদ্বন্দ্বীদের সরিয়ে খুব দ্রুত জিও তার আকর্ষণীয় প্ল্যানের জন্য ব্যবহারকারীদের কাছে জায়গা করে নিয়েছিল। এর আগে জিও ব্যবহারকারীদের জন্য নিয়ে এসেছিল ৫৯৪ এবং ২৪৭ টাকার অফার। এবার এই নতুন অফার আনাতে ক্রেতারা যে খুশি হবেন তা বলাই যায়।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.