ভারতের নেটওয়ার্কিং পরিষেবার ক্ষেত্রে অত্যন্ত জনপ্রিয় এবং প্রয়োজনীয় তিনটি নাম হল এয়ারটেল, জিও এবং উই। যদিও বাজারে নতুন করে পা রেখেছিল উই। তবে পা রাখার পরেও দ্রুত জনপ্রিয়তা লাভ করে এই কোম্পানি। তবে এবারে এই তিন কোম্পানির তরফে ক্রেতাদের জন্য আনা হয়েছে এক নতুন সুবিধা। ক্রেতাদের জন্য এবারে তারা দিতে চলেছে ই সিম পরিষেবা।

এই নতুন সুবিধা আনার ফলে মনে করা হচ্ছে নেটওয়ার্কিং পরিষেবা এক অন্য রূপ নেবে। এই নতুন পরিষেবার জেরে ক্রেতাদের ফোনে আলাদা করে সিমের জায়গা রাখার দরকার পরবে না। তবে কেবল স্মার্ট ফোনই নয় অন্য যে কোন ডিভাইসেই ব্যবহার করা যাবে এই ই সিম। আর সে ক্ষেত্রে আলাদা জায়গার দরকার পড়বে না। ফলে ক্রেতাদের এই সিমের দরকার পরলে বা তারা যদি নিজেরাই এই ই সিম ব্যবহার করতে চান সেক্ষেত্রে গ্রাহকদের নিজেদের অপারেটর কে ফোন করতে হবে। তার পরেই সহজ ভাবে এই কাজ করা যাবে।

জানানো হয়েছে জিও উই এবং এয়ারটেলের তরফে এই সুবিধা আনা হয়েছে ক্রেতাদের জন্য। এমনকি জানানো হয়েছে গ্রাহকদের সিম কার্ড ই সিমে পরিবর্তন করার সুবিধাও রয়েছে। তবে নির্দিষ্ট কিছু ফোনেই আনা যাবে এই সুবিধা। আর এই সুবিধা নেওয়ার জন্য সহজ কিছু পদক্ষেপ নিতে হবে। এর জন্য গ্রাহকদের jio self care portal থেকে নিজের এলাকার কাছাকাছি জিও স্টোর খুজতে হবে। সেখানে নিজের আই কার্ড নিয়ে যেতে হবে। এই সুবিধা আই ফোনে পাওয়া যাবে বলেও জানানো হয়েছে।

এছাড়াও স্যামসং এর ফোন সহ অন্যান্য জনপ্রিয় ব্র্যান্ডের কিছু ফোনের গ্রাহকেরা এই সুবিধা পেতে পারবেন। এছাড়া এই সুবিধা পাওয়া যাবে গুগল ফোনেও। উই এর ই সিম পরিষেবা চালু করার জন্য esim space নিজেদের ইমেল আইডি লিখে ১৯৯ পাঠিয়ে দিতে হবে। সেখান থেকে একটি মেসেজ গ্রাহকদের পাঠানো হবে। তারপরে সেখান থেকে সম্মতি দিলে গ্রাহকেরা এই সিম ব্যবহার করতে পারবেন। কার্যত সিম পরিষেবার ক্ষেত্রে এবারে এক নতুন পদক্ষেপ বাজারে নিয়ে এল এই তিন কোম্পানি।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

করোনা পরিস্থিতির জন্য থিয়েটার জগতের অবস্থা কঠিন। আগামীর জন্য পরিকল্পনাটাই বা কী? জানাবেন মাসুম রেজা ও তূর্ণা দাশ।