ভারতে মোবাইল ইন্টারনেটের যুগে বিপ্লব এনেছে জিও। ইন্টারনেটের এত দহরম মহরম ব্যাপার জিও আসার আগে যে কেউ ভাবতে পারত না, তাও অস্বীকার করার কোনও উপায়ই নেই। জিও ঝড়ে রীতিমতো কুপোকাত হয়ে গিয়েছে অন্যান্য টেলিকম সংস্থাগুলি। তবে এবার রিচার্জ প্ল্যানের দাম বাড়াল জিও ।

৩৩৬ দিনের প্যাক নিয়ে এসেছে জিও। এই রিচার্জে দৈনিক দেড় জিবি করে ইন্টারনেট ও আনলিমিটেড জিও টু জিও কল এবং দৈনিক ১০০ টি এসএমএস-এর সুবিধা দিচ্ছে সংস্থা। জিও-র তরফে এই রিচার্জের জন্য মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে ২১২১ টাকা।

অন্যদিকে, আগে এর চেয়েও দারুণ অফার ছিল জিও-র ঝুলিতে। যা কিনা প্রকৃতপক্ষে চলতি বছরের শুরুতেই সামনে এনেছিল জিও। ওই অফারের নাম ছিল ২০২০ অফার। এক্ষেত্রে ২০২০ টাকা রিচার্জ করলেই মিলত দৈনিক দেড় জিবি করে ইন্টারনেট ও আনলিমিটেড জিও টু জিও কল এবং দৈনিক ১০০ টি এসএমএস। ২০২০-এর প্ল্যানটিকে সরিয়েই জিও নিয়ে এসেছে ২১২১-এর এই প্ল্যানটি। যেক্ষেত্রে সুবিধা এক পাওয়া গেলেও ধার্য দিন কমিয়েছে কোম্পানি। অর্থাৎ ঘুরিয়ে দাম বেড়েছে জিও-র লং টার্ম রিচার্জের।

জিও ২১২১ এর রিচার্জে কী দিচ্ছে ?

এই রিচার্জে দৈনিক দেড় জিবি করে ইন্টারনেট ও আনলিমিটেড জিও টু জিও কল এবং দৈনিক ১০০ টি এসএমএস-এর সুবিধা দিচ্ছে সংস্থা। পাশাপাশি জিও থেকে অন্য অপারেটরে ফোনের ক্ষেত্রে ১২,০০০ মিনিট পাওয়া যাচ্ছে। সঙ্গে থাকছে জিও টিভি, জিও নিউজ-এর মতো সুবিধা।

অন্য অপারেটরদের সঙ্গে জিও-র এই রিচার্জের তুলনা

এয়ারটেলেও এমন লং টার্মের রিচার্জ প্ল্যান রয়েছে। তবে আনলিমিটেড কল, দৈনিক দেড় জিবি ডেটা ও ১০০ এসএমএস-এর ক্ষেত্রে এয়ারটেলের এই প্ল্যানের দাম ২৩৯৮ টাকা। ভোডাফোনের ক্ষেত্রে এই রিচার্জ প্ল্যানের দাম রয়েছে ২৩৯৯ টাকা। উভয় কোম্পানির ক্ষেত্রেই দিন সংখ্যা থাকছে ৩৬৫ দিন।

অর্থাৎ জিও তাঁর প্রতিদ্বন্দ্বীদের তুলনায় দাম কিছুটা কম নিলেও রিচার্জের বৈধতার সময়সীমাও দিচ্ছে অনেকেটা কম। এখন আপনিই দেখুন কোনদিকে আপনার লাভ বেশি।