নয়াদিল্লি: ৯ অক্টোবর থেকে অন্য নেটওয়ার্কে ফোন করতে গেলে অতিরিক্ত চার্জ নিচ্ছে জিও। প্রতি মিনিটে ৬ পয়সা করে চার্জ ধরা হচ্ছে জিওর তরফে। জিও যখন প্রথম এই ঘোষণা করে, তারপর থেকেই হুলুস্থূল পরিবেশের সৃষ্টি হয়। আতঙ্ক ছড়ায় জিও গ্রাহকদের মধ্যে।

কিন্তু শুধুমাত্র জিও গ্রাহকরাই যে আতঙ্কের স্বীকার হয়েছিল, তা নয়। চাপা উৎকণ্ঠা কাজ করছিল অন্য নেটওয়ার্ক ব্যবহারকারীদের মধ্যেও। এবার কি এয়ারটেল, ভোডাফোন-আইডিয়ার মতো কোম্পানিগুলিও বসাতে শুরু করবে এই এক্সট্রা আইইউসি চার্জ ?

অবশেষে মিটল সেই চিন্তা। জিও-র প্রতিদ্বন্দ্বী সংস্থা এয়ারটেল ও ভোডাফোন-আইডিয়া জানিয়ে দিল, তাঁদের অবস্থার কোনও বদল হচ্ছে না। ভোডাফোন-আইডিয়া সর্বপ্রথম এই ব্যাপারে নিজেদের সিদ্ধান্তের কথা জানায়। তাঁরা জানিয়েছে যে, ভোডাফোন-আইডিয়া জিও-কে অনুসরণ করছে না। অন্য নেটওয়ার্কে ফোন করতে গেলে নেওয়া হবে না কোনও অতিরিক্ত চার্জ। ফলে ভোডাফোন-আইডিয়া গ্রাহকেরা তাঁদের রিচার্জ প্যাক অনুযায়ী সুবিধা নিতে পারবেন, এর জন্য কোনও আলাদা টাকা দিতে হবে না। অর্থাৎ, কোনও গ্রাহক যদি এক মাস বা তিন মাসের আনলিমিটেড প্যাক রিচার্জ করেন তবে তিনি যেকোনও নেটওয়ার্কেই ফোন করতে পারবেন বিনামূল্যে।

অন্যদিকে, এখন পর্যন্ত এব্যাপারে এয়ারটেল সরাসরি পরিষ্কার ভাবে কোনও ঘোষণা করেনি। এয়ারটেল জিও-র রাস্তায় হাঁটবে নাকি ভোডাফোন-আইডিয়ার রাস্তায় পথ চলা শুরু করে সেই দিকেই তাকিয়ে এয়ারটেল গ্রাহকেরা। তবে এয়ারটেলের তরফে জানানো হয়েছে, এই শিল্পে আইইউসি চার্জের প্রয়োজন আছে।

বিশেষ করে যে সকল নেটওয়ার্ক এখনও টু-জি পরিষেবা দেয়, তাঁদের কথা ভেবে এই চার্জের প্রয়োজন আছে। এয়ারটেল আরও জানিয়েছে, প্রায় ৪০০ মিলিয়ান গ্রাহকেরা ২ জি সার্ভিস পেয়ে থাকে। যখন টেলিকম সংস্থা লসে চলে তখন এই আইইউসি চার্জই ২ জি পরিষেবা দিতে সহায়তা করে।

সে যাই হোক, আপাতত ঘোষণা অনুযায়ী নিশ্চিন্ত হতে পারেন ভোডাফোন-আইডিয়া গ্রাহকেরা। তাঁদের দিতে হচ্ছে না অতিরিক্ত টাকা। এয়ারটেল আইইউসি চার্জকে ঘুরিয়ে সমর্থন করলেও এখনও চালু করেনি এই চার্জ। ফলে এয়ারটেল গ্রাহকেরা আপাতত স্বস্তিতে থাকতেই পারেন। কিন্তু জিও রয়েছে তার অবস্থানে অনড়। জিও ছাড়া অন্য নেটওয়ার্কে ফোন করলে দিতে হবে মিনিট প্রতি ৬ পয়সা করে।