পাটনা: প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সমালোচনায় কথার শালীনতা ছাড়ানোর অভিযোগ উঠল দলিত বিধায়ক জিগনেশ মেবানির বিরুদ্ধে৷ সম্প্রতি একটি জনসভায় প্রধানমন্ত্রীকে ‘নমক হারাম’ বলে কুমন্তব্য করে বিতর্কে জড়ান গুজরাতের এই দলিত নেতা৷

ঠিক কী বলেছিলেন তিনি? বুধবার বিহারের পাটনায় একটি জনসভায় হাজির হন জিগনেশ মেবানি৷ সেখানে তিনি বিহার, উত্তরপ্রদেশ থেকে গুজরাতে যাওয়া শ্রমিকদের উপর হামলার কড়া সমালোচনা করেন৷ তখনই মোদীকে বিঁধে তাঁর নীরবতা নিয়ে প্রশ্ন তোলেন৷ জিগনেশের প্রশ্ন একাধিক রাজ্য গুজরাতে কাজ করতে যাওয়া শ্রমিকদের উপর হামলা হল৷ অথচ প্রধানমন্ত্রী চুপ৷ তিনি একটি শব্দও খরচ করলেন না৷

গুজরাতের এই দলিত নেতা এরপরই মোদীকে ‘নমক হারাম’ বলে বসেন৷ বলেন, ‘‘তিনি নমক হারাম৷ মধ্যপ্রদেশ, বিহার, উত্তরপ্রদেশ, ঝাড়খন্ড থেকে শ্রমিকরা গুজরাতে গিয়েছেন৷ তারা সেখানে গিয়ে রাজ্যের পরিকাঠানো উন্নয়নে সামিল হয়েছেন৷ তাদের পরিশ্রমের ফল আহমেদাবাদ, সুরাট, রাজকোট ও বরোদার ফ্লাইওভার৷ অথচ বিহার ও উত্তরপ্রদেশের শ্রমিকদের উপর ১২-১৫ দিন ধরে হামলা হল৷ কিন্তু নমক হারাম একটিও শব্দ ব্যয় করেননি৷’’

পাটনার গান্ধী ময়দানে বামেদের আয়োজিত বিজেপি হারাও দেশ বাঁচাও ব়্যালিতে মাত্র ৯ মিনিট বক্তব্য পেশ করেন জিগনেশ মেবানি৷ তার মধ্যে ৬ মিনিট শুধু মোদীকে ধিক্কারই জানিয়ে গিয়েছেন তিনি৷ এই জনসভা থেকেই মোদী ও তাঁর সরকারের দিকে তেড়েফুঁড়ে আক্রমণ করেন৷ অর্থনীতি থেকে বেকারত্ব সব বিষয়ে কেন্দ্রীয় সরকারের সমালোচনা করেন৷ প্রবল বিজেপি বিরোধী বলে পরিচিত মেবানি আগেও নরেন্দ্র মোদীর সমালোচনা করেছেন৷