লাতেহার: শুরু হয়ে গেল ঝাড়খণ্ড বিধানসভা নির্বাচনের হেভিওয়েট প্রচার। বৃহস্পতিবার লাতেহারে প্রচার সমাবেশে বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহের দাবি, গগনচুম্বী রাম মন্দির বানানো হবে। অমিত শাহের প্রচারে রাম মন্দির প্রাধান্য পাওয়ায় বিরোধী জেএমএম-কংগ্রেস শিবির জুড়ে তীব্র আলোড়ন।

অভিযোগ, মন্দির তাস খেলেই নির্বাচনে নিজের অস্তিত্ব রাখতে চাইছে বিজেপি। লাতেহারের মনিকা মাঠেই রাজ্যে ক্ষমতাসীন বিজেপি প্রথম নির্বাচনী জনসভায় অমিত শাহকে নামাল। কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী তথা বিজেপি সর্ব ভারতীয় সভাপতির হুঙ্কার, মুখ্যমন্ত্রী রঘুবর দাসের নেতৃত্বে মাওবাদী উপদ্রুত এলাকা থেকে মুক্ত হচ্ছে ঝাড়খণ্ড। তিনি বলেন, বিরোধীরা প্রচার করছে বিজেপির সরকার কী করেছে।

প্রশ্ন করছি, কংগ্রেস ও ঝাড়খণ্ড মুক্তি মোর্চা এই রাজ্যের জন্য কী করেছে? নির্বাচনী বিশ্লেষকদের ধারণা, ঝাড়খণ্ড বিধানসভা নির্বাচনে রাম মন্দির তৈরির ইস্যু-কেই মূল হাতিয়ার করবে বিজেপি । সেই বার্তা বৃহস্পতিবার লাতেহারের জনসভা থেকেই মিলতে শুরু করেছে। রাজ্য বিজেপি সূত্রে খবর, আগামী ২৫ নভেম্বর প্রচারে আসছেন মোদী।