রাঁচি: নেতাজির জন্মদিনে ছুটি ঘোষণা করল রাজ্য সরকার। আগামিকাল বৃহস্পতিবার ১২৩ তম জন্মদিন নেতাজি সুভাষ চন্দ্র বসুর। মহান এই দেশপ্রেমিককে স্যালুট জানাতেই ছুটি ঘোষণা করল ঝাড়খন্ড সরকার। সে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী হেমন্ত শোরেন সোশ্যাল মিডিয়াতে টুইট করে ছুটির বিষয়টি জানিয়েছেন। মুখ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন, নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসুর ‘কর্মভূমি’ হচ্ছে ঝাড়খন্ড। দেশের সেবায় এই রাজ্য থেকে একাধিক সিদ্ধান্ত নিয়েছেন নেতাজি। তাঁকে শ্রদ্ধা জানাতেই সে রাজ্যের সমস্ত কিছু বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার, টুইট বার্তায় জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী হেমন্ত শোরেন।

উল্লেখ্য, স্বাধীনতা সংগ্রামী নেতাজির সঙ্গে ওতোপ্রতোভাবে জড়িয়ে রয়েছে ধানবাদের ‘ভাগা’ স্টেশন ৷ কিন্তু কেন? সেই রহস্যটা হয়তো অনেকেরই অজানা ৷ ইতিহাসের পাতায় অনেকসময়ই ‘ভাগা’ স্টেশনের উল্লেখ পাওয়া গিয়েছে। কিন্তু যত দিন গড়িয়েছে তত এই স্টেশনের সঙ্গে জড়িয়ে থাকা ইতিহাস ফিকে হয়ে গিয়েছে ৷ এই স্টেশন থেকেই দেশের স্বাধীনতার জন্য অনেক কাজ করেছিলেন তিনি ৷ এমনকি, এই স্টেশনেই নেতাজির অনেক পরিচিতজনও থাকতেন ৷ যারা নেতাজিকে অনেকসময়ই সাহায্য করতেন ৷ যার জেরে কয়েকবার ধরা পড়লেও পরিচিতদের সাহায্যে সহজেই পুলিশের চোখে ধুলো দিয়ে পালিয়ে যেতেন তিনি ৷

১৯৪১ সালের ১৮ জানুয়ারি ৷ ধানবাদ পৌঁছন নেতাজি ৷ এরপরই ধানবাদের গোমো স্টেশন থেকে নিরুদ্দেশ হয়ে গিয়েছিলেন তিনি ৷ কিন্তু গোমো স্টেশন পৌঁছনোর আগে তিনি যান ভাগা স্টেশন ৷ কিন্তু তাঁকে খুঁজতে নেতাজি পৌঁছনোর পরই ওই স্টেশন পৌঁছে যায় পুলিশ ৷ কিন্তু পুলিশের চোখে ধুলো দিয়ে ওই এলাকা থেকে পালিয়ে যান নেতাজি ৷ এরপর ধানবাদের গোমো স্টেশন থেকে অমৃতসর এক্সপ্রেস ধরে তিনি পালিয়ে যান ৷ কিন্তু তারপর কি হয় নেতাজির সঙ্গে ৷ সেই বিষয়ে আজও অন্ধকারে ইতিহাসবিদরাও ৷

প্রসঙ্গত, নেতাজীর জন্মদিন জাতীয় ছুটি হিসেবে ঘোষণা না করা নিয়ে বারবার সরব হয়েছেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ২৩ জানুয়ারি জাতীয় ছুটি হিসেবে ঘোষণা না করা নিয়ে বিজেপিকে আক্রমণ করেছেন মুখ্যমন্ত্রী। গত বছর বিজেপিকে আক্রমণ করে মুখ্যমন্ত্রী বলেছিলেন, নেতাজী সুভাষচন্দ্র বসুকে দেশের নেতা হিসেবে মনে করে না বিজেপি, তাই হয়তো কেন্দ্রীয় সরকার ২৩ জানুয়ারিকে জাতীয় ছুটি হিসেবে ঘোষণা করেনি। যদিও গোটা রাজ্যজুড়ে সাড়ম্বরে পালিত হয় নেতাজির জন্মজয়ন্তি। এই রাজ্যে অনেক আগে থেকেই ২৩ জানুয়ারি ছুটি থাকে। এবার সেই তালিকায় নবতম যোগ ঝাড়খন্ড।