ফাইল ছবি

নয়াদিল্লি: বহুদিন ধরেই আর্থিক সমস্যায় জেরবার জেট এয়ারওয়েজ৷ এবার বড়সড় বিক্ষোভ প্রতিবাদে নামলেন জেটের কর্মীরা৷ দিল্লি বিমানবন্দরে বিক্ষোভ দেখিয়ে বকেয়া পাওনা দাবি করলেন তাঁরা৷ সেই সঙ্গে হুমকি দিলেন, সোমবার থেকে উড়ান পরিষেবা বন্ধ করে দেওয়া হবে জেট এয়ারওয়েজের৷

উল্লেখ্য শনিবার সারাদিন জেটের মাত্র ৬-৭টি বিমান চলাচল করেছে৷ অবশ্য এই অবস্থা নতুন নয়৷ গত এক মাস ধরেই উড়ান সংখ্যা নিয়মিত কমছে জেটের৷ তারই সঙ্গে বাকি রয়েছে কর্মীদের বেতন৷ শনিবার দিল্লির ইন্দিরা গান্ধী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের ৩ নম্বর টার্মিনালের সামনে প্ল্যাকার্ড নিয়ে বিক্ষোভ দেখান কর্মীরা৷

সোমবারই প্রধানমন্ত্রীর দফতর এই বিষয়ে হস্তক্ষেপ করবে বলে জানা গিয়েছে৷ তবে সেই হস্তক্ষেপের তোয়াক্কা না করেই কর্মীদের হুমকি সোমবার থেকেই বন্ধ করা হচ্ছে জেটের সব বিমানের উড়ান৷ মুম্বইতে শুক্রবার এক মৌন মিছিল করেন জেটের সব কর্মী৷ অসামরিক বিমান পরিবহণ মন্ত্রকের সচিব প্রদীপ সিং খারোলা এর আগে জানিয়ে ছিলেন জেটের দুরবস্থার কথা৷

আগামিকাল এসবিআই নেতৃত্বাধীন অর্থপ্রদানকারী সংস্থাগোষ্ঠী একটি বৈঠকে বসবে বলে জানা গিয়েছে৷ বৈঠকে উপস্থিত থাকবেন জেট এয়ারওয়েজের কর্মকর্তারাও৷ সেখানে জেটের পক্ষ থেকে ইন্টেরিম ফান্ডিং বা অন্তর্বর্তী আর্থিক সহায়তার জন্য সওয়াল করা হবে৷

জেটের পক্ষ থেকে আগেই জানান হয়েছিল ৩১ মার্চের মধ্যে বেতন সংক্রান্ত ঝামেলা না মিটলে বিক্ষোভের পথে হাঁটবেন তারা৷ জেটের বিমানচালকদের ট্রেড ইউনিয়ন ন্যাশনাল অ্যাভিয়েটরস গিল্ড (‌ন্যাগ) এক বিবৃতিতে জানিয়ে দেয় ‌স্টেট ব্যাংকের পক্ষ থেকে ঋণ দেওয়ার কথা থাকলেও তা এখনও দেয়নি। ফলে বেতন নিয়েও কর্তৃপক্ষ কোনও কথা বলেনি।

প্রসঙ্গত, বহুদিন ধরেই আর্থিক সমস্যায় ভুগছে এই বিমান সংস্থাটি৷ তিন মাসের বেশি বেতন বকেয়া জেটের বিমানচালকদের। চরম সংকটের মধ্যে দিয়ে যাচ্ছে জেট এয়ারওয়েজ। এখন ঘাড়ে প্রায় সাত হাজার কোটি টাকার দেনার বোঝা রয়েছে। গত কয়েকদিন ধরে বাতিল হয়েছে জেটওয়ারএয়েজের বেশ কিছু উড়ান৷

পরিস্থিতির চাপে জেট এয়ারওয়েজ এপ্রিল মাস পর্যন্ত ১৩টি আন্তর্জাতিক রুটে বিমান না চালানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে আর অর্থের অভাবে ভাড়া না মেটানোয় বসিয়ে দেওয়া হয়েছে একাধিক বিমান।