কলকাতাঃ  ভাটপাড়ায় মমতার গাড়ির সামনে ‘জয় শ্রী রাম’ স্লোগান। আর তা শুনেই মেজাজ হারালেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এমনকি গাড়ি থেকে নেমে রীতিমত সাধারণ মানুষের দিকে ধেয়ে যান তৃণমূল নেত্রী। যদিও পরে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, কি সাহস। গালাগালি দিচ্ছে ওরা…। গুন্ডামি, মস্তানি হবে না বলেও হুঁশিয়ারি দেন মমতা। এরপরেই সমস্ত বাড়িতে নাকা চেকিং চালানোর জন্যে পুলিশকে নির্দেশ দেন প্রশাসনিক প্রধান। উল্লেখ্য, ভোটের মরশুমে মেদিনীপুরে ভোট প্রচারে যাওয়ার সময় একইভাবে তাঁকে দেখে ‘জয় শ্রী রাম’ স্লোগান দেয় একদল যুবক। সেই একই ঘটনার পুনরাবৃত্তি ঘটল এবার ভাটপাড়ায়।

আজ নৈহাটিতে সভা করতে যান মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বিজেপির হাতে আক্রান্ত তৃণমূল কর্মীদের বাড়ি ফেরানোর জন্যে নৈহাটির ধর্না মঞ্চে যোগ দেন মমতা। আর সেখানে যাওয়ার সময় ভাটপাড়ার একটি জুটমিলের সামনে কিছুটা গাড়ির গতি কিছুটা স্লথ হয়।

আর তা হতেই বেশ কিছু যুবক তাঁকে দেখেই ‘জয় শ্রী রাম’ স্লোগান দেন। আর তা শুনেই মেজাজ হারান মমতা। সেখানেই গাড়ি থেকে নেমে পড়েন মমতা। রীতিমত যুবকদের ধেয়ে যান মমতা। একই সঙ্গে মমতার হুঁশিয়ারি, এখানে এসে থাকছ, আমাদের পয়সায় চলছ… এরপরেই পুলিশকে পুরো বিষয়টি দেখে নেওয়ার নির্দেশ মমতার।

এরপরে নৈহাটির মঞ্চ থেকে মমতা বলেন, বাংলাকে কোনওদিন গুজরাট হতে দেব না। তাঁর দাবি, ভাটপাড়ায় জুটমিলের সামনে বেশ কিছু যুবক তাঁর গাড়িতে হামলা চালানোর চেষ্টা করে। কীভাবে এত সাহস পায় ওরা তা নিয়ে প্রশ্ন তোলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

একই সঙ্গে মমতা আরও বলেনম আমি কখনও হিন্দু-মুসলমান করি না। সব হিন্দিভাসী খারাপ মনে করি না। সবাইকে এক চোখে দেখি। কোনও দিন বিভাজনের রাজনীতি করা হয় না বলেও দাবি মমতা। কিন্তু এরপরেও যা ঘটছে তা কখনই মেনে নেওয়া হবে না বলে হুঁশিয়ারি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের।