কলকাতা- লোকসভায় সিঁথিতে সিঁদুর ও গলায় মঙ্গলসূত্র পরে শপথ গ্রহণ করেছিলেন অভিনেত্রী তথা সাংসদ নুসরত জাহান। মৌলবাদীদের আক্রমণের শিকার হয়েছিলেন তিনি। ফের দুর্গাপূজায় অঞ্জলি দিয়ে কট্টরপন্থীদের নিশানায় নুসরত। তাঁদের দাবি, নুসরত ইসলামের বদনাম করছেন। এমনকি, অভিনেত্রী যাতে তাঁর নাম বদলে ফেলেন, সেই দাবিও করেছে উত্তরপ্রদেশের দারুল-উলুম-উলেমা-এ হিন্দ। কট্টরপন্থীদের ফতোয়ার বিরুদ্ধে মুখ খুলেছেন নুসরত জাহান। এবার তাঁর পাশে দাঁড়ালেন জাভেদ আখতার।

জাভেদ আখতার টুইট করে বলেন, আমি নুসরতকে সম্পূর্ণ ভাবে সমর্থন করছি। এবার কি আমি জিজ্ঞাসা করতে পারি যে গণধোলাইকারীদের বিরুদ্ধে ও দরিদ্র আক্রান্তদের পাশে দাঁড়ানোর সাহস আপনাদের আছে তো!

জাভেদ আখতারের এই টুইট নুসরত শেয়ার করে ধন্যবাদ জানান। নুসরত কট্টরপন্থীদের ফতোয়ার বিরুদ্ধে বলেন, ‘ধর্মীয় সম্প্রীতির বার্তা দেওয়ার জন্যই দুর্গার সামনে প্রার্থনা করেছি। এভাবেই আমি সব ধর্মের সঙ্গে সম্প্রীতির বার্তা দিয়েছি।’

তবে মৌলবাদীদের কড়া জবাবই নয়। কট্টরপন্থীদেরও দুর্গাপূজার শুভেচ্ছা জানান তিনি। নাম পরিবর্তনের ব্যাপারে নুসরত বলেছেন, তিনি নাম পরিবর্তন করবেন কি না, সেই ব্যাপারে পরামর্শ দেওয়ার অধিকার নেই দারুল-উলুম-উলেমা-এ হিন্দের।

প্রসঙ্গত, বিয়ের পরে এটাই প্রথম পুজো নুসরত জাহানের। তাই বিয়ে নিয়ে যে বিশেষ উত্তেজনা থাকবে তাঁদের, তা বলাই বাহুল্য। অষ্টমীর সকালেন স্বামী নিখিল জৈনকে নিয়ে সুরুচি সঙ্ঘের পুজো মণ্ডপে পৌঁছে যান নুসরত। পুজো মণ্ডপে একেবারে সাবেকি দম্পতির বেশেই পৌঁছে যান দুজনে। অষ্টমীতে পুষ্পাঞ্জলি দেন নুসরত ও নিখিল। এর পরেই নুসরত কোমরে শাড়ি গুঁজে ও নিখিল পাঞ্জাবির হাতা গুটিয়ে ঢাক বাজানো শুরু করেন। আর নবদম্পতিকে সঙ্গ দিলেন মন্ত্রী অরূপ বিশ্বাস।

তবে শুধু অষ্টমী নয়। চতুর্থী থেকেই পুজোর আনন্দ শুরু করে দিয়েছেন নুসরত ও নিখিল। পঞ্চমী, ষষ্ঠী, সপ্তমী, অষ্টমী, সব মিলিয়ে রোজ আলাদা আলাদা লুকে ছবি পোস্ট করছেন তারকা-সাংসদ। বিয়ের প্রথম পুজো বলে কথা।