নয়া দিল্লি: চন্দ্রায়ন-২ নিয়ে ইসরো ও এই মিশনে যুক্ত সকল বিজ্ঞানীদের প্রশংসা করল জাপান। বিক্রম ল্যান্ডারকে চাঁদে পাঠানোর বিরাট উদ্যোগের প্রশংসাও করা হয়। ভারতে জাপানের দূতাবাস থেকে এই বার্তা পাঠানো হয়েছে।

চন্দ্রায়ন-২ নিয়ে ভারত যা যা চ্যালেঞ্জ পাশাপাশি জটিলতার সম্মুখীন হয়েছে তার উল্লেখও করা হয় সেই বার্তায়। জাপানের দূতাবাস সূত্রে বলা হয়েছে, “আমরা ইসরো ও বিজ্ঞানীদের প্রশংসা করছি। চন্দ্রায়ন-২ নিয়ে তাঁদের চ্যালেঞ্জ ও বাঁধাকে মোকাবিলার জন্য।” চাঁদ নিয়ে ইসরোর অন্বেষণ স্পীহার উপর আস্থা প্রকাশ করে জাপান জানায়, “আমরা নিশ্চিত যে ভারত চাঁদ নিয়ে আরও জানার প্রচেষ্টা চালিয়ে যাবে। জাপানও যা চালিয়ে যাচ্ছে।”

এই বার্তার পাশাপাশি আরও জানান হয় যে, ইসরো চন্দ্রযান-২ এর মিশনের পর চাঁদে আরও বড় মিশনের প্রস্তুতি নিচ্ছে। ইসরোর এই মুন মিশন গতবারের থেকে ভালো এবং আরও উন্নত হবে। এই মিশনে ইসরো চাঁদের মরু অঞ্চল থেকে স্যাম্পেল যোগার করবে। চাঁদের মরু অঞ্চলে এই অভিযানের জন্য জাপানের মহাকাশ গবেষণা সংস্থা (JAXA) ইসরোর সাথে হাতে মিলিয়েছে। ইসরোর থেকে একটি বয়ান জারি করে বলা হয়েছে যে, “ইসরো আর JAXA-র বিজ্ঞানীরা চাঁদের মরু অঞ্চলে পরীক্ষা নিরীক্ষা চালানোর জন্য সংযুক্ত স্যাটেলাইট মিশন নিয়ে ভাবছে।”

শুক্রবার রাতে চাঁদে পৌঁছনোর কথা ছিল ল্যান্ডার বিক্রমেরল কিন্তু কয়েক মিনিট আগেই সেই ল্যান্ডারের সঙ্গে ইসরোর যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। এরপর থেকেই উৎকন্ঠায় কাটাচ্ছিলেন ইসরোর বিজ্ঞানীরা। অবশেষে রবিবার সকালে সেই বিক্রমের ছবি ধরা পড়েছে বলে জানিয়েছেন ইসরোর চেয়ারমান কে সিবান। অরবিটারের ক্যামেরাটি হাই রেজলুশনের। চন্দ্র অভিযানে এর আগে কেউ এমন শক্তিশালী ক্যামেরা ব্যবহার করেনি। সেই ক্যামেরায় ধরা পড়েছে বিক্রমের ছবি। অর্থাৎ বিক্রম যে অক্ষত রয়েছে, সেটা স্পষ্ট। মনে করা হচ্ছে সফট ল্যান্ডিং সফল হয়েছে।

ল্যান্ডার বিক্রমের একটি থার্মাল ইমেজ ধরা পড়েছে অরবিটারে। অরবিটারটি চাঁদের চারপাশে কক্ষপথে ঘুরছে। তাতেই ধরা পড়েছে ছবি। তবে কি অবস্থায় বিক্রম রয়েছে তা নিয়ে প্রশ্নচিনহ থেকে যাচ্ছে এখনও। রবিবার ইসরোর অনবদ্য প্রচেষ্টাকে কুর্নিশ জানিয়ে চন্দ্রযান-২ নিয়ে ভারতকে শুভেচ্ছা জানিয়েছিল আমেরিকা। বিক্রম ল্যান্ডারকে চাঁদে পাঠানোর বিরাট উদ্যোগের প্রশংসাও করা হয়। প্রথম প্রচেষ্টাতেই ১০০ শতাংশ সাফল্য না এলেও ভারতের জন্য এটি একটি বড় পদক্ষেপ।