টোকিও: জাপানের হিরোশিমায় পরমাণু বোমা বর্ষণের ৭৫ বর্ষপূর্তি পালন হল। তবে করোনাভাইরাসের মহামারীর জন্য এবারের অনুষ্ঠানাদি কমানো হয়েছে।এদিনের অনুষ্ঠানে শুধুমাত্র হামলা থেকে বেঁচে যাওয়া লোকজন, হতাহতদের আত্মীয়-স্বজন ও বিদেশি অতিথিরা অংশ নেন।

অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন হিরোশিমার মেয়র কাজুমি মাৎসুই। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের একেবারে শেষ দিকে ১৯৪৫ সালের ৬ আগস্ট মার্কিন বিমান বাহিনী হিরোশিমা শহরের উপর পরমাণু বোমা হামলা চালিয়েছিল। এতে এক লাখ ৪০ হাজার মানুষ নিহত হন।

প্রতিবছর হামলার বার্ষিকীতে হাজার হাজার মানুষ তাদের বেদনা আর হৃদয়ের আবেগ নিয়ে অংশ নেন হিরোশিমা শহরের সেন্ট্রাল পার্কের অনুষ্ঠানে। হামলায় নিহতদের প্রতি যেমন জানানো হয় শ্রদ্ধা তেমনি অনুষ্ঠান থেকে বিশ্বশান্তি কামনা করা হয়। কিন্তু করোনাভাইরাসের কারণে এবারের অনুষ্ঠানে জনসাধারণের অংশগ্রহণ দশভাগের একভাগে নামিয়ে আনার সিদ্ধান্ত নিয়েছে জাপান সরকার।

প্রসঙ্গত,১৯৪৫ সালের ৬ আগস্ট সকাল ৮টা ১৫ মিনিটের সময় মার্কিন বি-২৯ বোমারু বিমান এনোলা গে থেকে বন্দরনগরী হিরোশিমার উপর অ্যাটম বোমা ফেলা হয়েছিল। মুহূর্তে ১০ বর্গকিলোমিটার এলাকার সবকিছু ধ্বংস হয়ে যায় এবং নিহত হন এক লাখ ৪০ হাজার মানুষ।

তাৎক্ষণিকভাবে এসব মানুষ মারা যাওয়ার পাশাপাশি আহত অনেকে পরে মারা যান এবং বহু মানুষ মাসের পর মাস কিংবা বছরের পর বছর তেজস্ক্রিয়তায় ভুগে মারা যান এবং বিকলাঙ্গ হয়ে গিয়েছিলেন এই ভয়াবহ পরমাণু হামলায়।

পপ্রশ্ন অনেক: একাদশ পর্ব

লকডাউনে গৃহবন্দি শিশুরা। অভিভাবকদের জন্য টিপস দিচ্ছেন মনোরোগ বিশেষজ্ঞ।