প্রতীকী ছবি

শ্রীনগর: ফের জঙ্গি হামলা৷ জম্মু-কাশ্মীরের পুলওয়ামায় বুধবার সকালে জঙ্গি হামলায় এক মহিলার মৃত্যু হয়েছে বলে জানা গিয়েছে৷ এক পুলিশ আধিকারিক জানান, পুলওয়ামার সিঙ্গু-নারবালে এক ব্যক্তি এবং মহিলাকে টার্গেট করে গুলি চালায় জঙ্গিরা৷ ওই ব্যক্তি বাঁচানো সম্ভবপর হলেও, মহিলাকে বাঁচানো যায়নি৷ মৃতের নাম নিগিনা বানো বলে জানা গিয়েছে৷ ওই দুজনকে কেন টার্গেট করা হল, কোনও পুরনো শত্রুতা ছিল না সেই প্রশ্নও উঠছে৷

এর আগে গতকালই ভারতীয় সেনার পক্ষ থেকে প্রকাশ করা হয় এক তালিকা৷ যে তালিকায় রয়েছে কাশ্মীর উপত্যকায় সন্ত্রাস সৃষ্টি করা ১০ মোস্ট ওয়ান্টেড টেররিস্টের নাম৷ তালিকার শীর্ষে রয়েছে হিজবুল মুজাহিদিন জঙ্গি গোষ্ঠীর অন্যতম মাথা ও উপত্যকায় হিজবুলের প্রধান রিয়াজ আহমেদ নাইকুর নাম৷ নাইকু ২০১০ সাল থেকে হিজবুলের সঙ্গে যুক্ত৷ কাশ্মীরে একাধিক নাশকতার সঙ্গে সে জড়িত বলে অভিযোগ৷ এই নামগুলি প্রকাশ করে সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে লড়াইকে আরও সংগঠিত করতে চাইছে ভারতীয় সেনা বলেই খবর৷

তালিকায় রয়েছে শ্রীনগরের বাসিন্দা মহম্মদ আশরাখ খান, বারামুল্লার মেহেরাজদুদ্দিন, শ্রীনগরের ড: সাইফুল্লা, কুপওয়াড়ার আজাজ আহমেদ ও আরশিয়াদ উল হকের নাম৷ এরা প্রত্যেকেই হিজবুল মুজাহিদিনের অন্যতম সক্রিয় সদস্য বলে ভারতীয় সেনা সূত্রে খবর৷ এছাড়াও নাম রয়েছে লস্কর ই তৈবার ওয়াসিম আহমেদ ওরফে ওসামার৷ যে সোপিয়ান থেকে বিভিন্ন নাশকতা মূলক কাজকর্ম চালায়৷ জইশ ই মহম্মদের হাফিজ উমর ও জাহিদ শেখের নাম রয়েছে ওই তালিকায়৷ অল বদর জঙ্গি জাভেদ আহমেদ মাট্টু জায়গা পেয়েছে তালিকায়৷

নর্দার্ন কমাণ্ডের জেনারেল অফিসার কমান্ডিং ইন চিফ লেফটেন্যান্ট জেনারেল রণবীর সিং জানান, এখনও পর্যন্ত এই বছরে ৮৬ জন জঙ্গিকে নিকেশ করা সম্ভব হয়েছে৷ ২০ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে৷ সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে লড়াই জারি রেখেছে ভারতীয় সেনা৷ কাশ্মীরের পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে বলে দাবি করে জেনারেল সিং বলেন আটক হওয়া জঙ্গিদের জীবনের মূল স্রোতে ফেরানোর কাজ করছে সেনা৷ যা যথেষ্ট চ্যালেঞ্জিং৷