File Pic

নয়াদিল্লি: কাশ্মীরে ৩৭০ ধারা বিলোপকে সরাসরি না হলেও সমর্থন জানাল একটি ভারতীয় ইসলামিক অরগানাইজেশন। সম্প্রতি ভারতীয় ইসলামিক সংস্থা জামিয়াত-উলেমা-ই-হিন্দ বিচ্ছিন্নতাবাদীদের সমালোচনা করে সরাসরি বলেছেন কাশ্মীর ভারতেরই অবিচ্ছেদ্য অংশ। পুরোপুরি ভারতের অংশ হত্যে উঠলেই কাশ্মীরিদের সার্বিক উন্নয়ন সম্ভব হবে। তিনি সরাসরি বিচ্ছিন্নতাবাদীদের ‘ক্ষতিকারক’ হিসেবে চিনহিত করেছেন।

বার্ষিক সম্মেলনে উপস্থিত থেকে কাশ্মীর নিয়ে বলেছেন, “জামিয়াত-উলেমা-ই-হিন্দ তাঁদের অঙ্গীকারের আলোতেই এই অনুষ্ঠানে আবারও বলছে যে, কাশ্মীর ভারতের অবিচ্ছেদ্য অংশ। সকল কাশ্মীরিরাই আমাদের সহ নাগরিক।

এছাড়াও জামিয়াত-উলেমা-ই-হিন্দ জানিয়েছে, “জামাইত-উলেমা-ই-হিন্দ সংস্থা সবসময়তেই দেশের ঐক্য এবং সংহতির কথা বলে এসেছে অ তার গুরুত্ব বুঝিয়ে এসেছে। যেহেতু বিচ্ছিন্নতাবাদীদের কখনই সমর্থন করেনি তাই তাদের ক্ষতিকারক কার্যকলাপকে ভারতের জন্য পুরোপুরি ক্ষতিকারক হিসেবেই ধরা হয়েছে একইসঙ্গে কাশ্মীরিদের জন্যও।

কাশ্মীরিদের প্রতি সহমর্মিতা প্রকাশ করে তিনি বলেন, ‘কাশ্মীর আমাদের ছিল, আছে এবং থাকবে। যেখানে ভারত থাকবে সেখানেই আমরা আছি।’ স্পষ্ট ভাষায় একথা বললেন জামিয়াত-উলেমা-ই-হিন্দের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক মেহমুদ মাদানি। বৃহস্পতিবার তাদের বৈঠকে সর্বসম্মতিক্রমে একটি প্রস্তাব গৃহীত হয়। ওই প্রস্তাবে বলা হয়েছে, কাশ্মীর ভারতের অবিচ্ছেদ্য অংশ। নিরাপত্তা এবং অখণ্ডতার প্রশ্নে কোন খামতি রাখা হবে না। ভারত আমাদের দেশ। আমরা সবসময় সঙ্গে রয়েছি।

‘কাশ্মীর আমাদের ছিল, আছে এবং থাকবে। যেখানে ভারত থাকবে সেখানেই আমরা আছি।’ অত্যন্ত স্পষ্টু সুরে এক কথা বললেন জমিয়তে উলামায়ে-ই-হিন্দের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক মেহমুদ মাদানি। বৃহস্পতিবার তাদের বৈঠকে সর্বসম্মতিক্রমে একটি প্রস্তাব গৃহীত হয়। ওই প্রস্তাবে বলা হয়েছে, কাশ্মীর ভারতের অবিচ্ছেদ্য অংশ। নিরাপত্তা এবং অখণ্ডতা প্রশ্নে সমঝোতা নয়। ভারত আমাদের দেশ। আমরা সবসময় সঙ্গে রয়েছি।

গত সপ্তাহে আরএসএস প্রধান মোহন ভগবতের সঙ্গে দেখা করেন মাদানি। হিন্দু-মুসলিম সম্প্রীতিরক্ষায় বিষয়ে আলোচনা হয় তাঁদের। গণপিটুনির মতো উদ্বেগজনক ঘটনা নিয়ে কথা বলেন মাদানি-ভগবত। পাকিস্তানের প্রতি ক্ষোভ প্রকাশ করে মাদানি আরও বলেন যে, “প্রতিবেশি দেশ হিসেবে পাকিস্তান কাশ্মীরকে ধ্বংস করতে ব্যস্ত।” তাঁর স্পষ্ট বক্তব্য কাশ্মীর অখন্ড ও অবিচ্ছেদ্য ভারতের অংশ হলে তবেই সেখানে উন্নতি হবে।