লন্ডন: জাতীয় দলের সতীর্থ জোস বাটলারের পদাঙ্ক অনুসরণ করে করোনা মোকাবিলায় এগিয়ে এলেন ইংরেজ ফাস্ট বোলার জেমস অ্যান্ডারসন। মহামারী করোনার জেরে বিপর্যস্ত বিশ্ব অর্থনীতি। থমকে গিয়েছে খেলার ময়দান। এমন সময় চিকিৎসা ব্যবস্থায় সাহায্যের লক্ষ্য নিয়ে হোক কিংবা দুঃস্থ পিছিয়ে পড়া মানুষদের কথা ভেবে এগিয়ে আসছেন খেলার মাঠের তারকারা। অনলাইনের মাধ্যমে তাদের সংগৃহীত স্মারক তারা তুলছেন নিলামে। নিলামের অর্থ অ্যাথলিটরা করোনা মোকাবিলায় তুলে দিচ্ছেন প্রয়োজনীয় খাতে।

ইংল্যান্ডের উইকেটরক্ষক-ব্যাটসম্যান তাঁর বিশ্বকাপ ফাইনালের জার্সি নিলামে তুলে সাহায্য করেছেন স্থানীয় হাসপাতালের সরঞ্জাম কেনার খাতে। একইভাবে বাংলাদেশের দুই তারকা ক্রিকেটার মুশফিকুর রহিম এবং শাকিব আল হাসান করোনা খাতে অর্থদানের জন্য নিলামে তুলেছেন তাঁদের বিশেষ ব্যাট। তালিকায় নয়া সংযোজন ইংরেজ স্পিডস্টার জেমস অ্যান্ডারসন। দক্ষিণ আফ্রিকার কেপ টাউনে খেলা সর্বশেষ টেস্ট ম্যাচের অটোগ্রাফ করা জার্সি, ব্যাট এবং উইকেট এবার নিলামে তুলছেন টেস্ট ক্রিকেটের সর্বোচ্চ উইকেট শিকারি পেস বোলার।

অনলাইনে ইবে ওয়েবসাইটের মাধ্যমে জিমি তাঁর এই স্মারক নিলামে তোলার কথা ঘোষণা করেছেন টুইটারে। উল্লেখ্য, শুক্রবার ইনস্টাগ্রামে লাইভ চ্যাট সেশনে ২০১৬ আইপিলের ব্যাট, জার্সি এবং গ্লাভস অনলাইনে নিলামে তলার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন আরসিবি অধিনায়ক বিরাট কোহলি ও তাঁর ফ্র্যাঞ্চাইজি ক্লাবের সতীর্থ এবি ডি’ভিলিয়ার্স। নিলামে সংগৃহীত অর্থ তাঁরা প্রয়োজনীয় গরিব মানুষের সাহায্যে দান করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।

এর আগে অ্যান্ডারসনের জাতীয় দলের সতীর্থ জোস বাটলার নিলামে তুলেছিলেন ২০১৯বিশ্বকাপ ফাইনালের জার্সি। গত মাসে লন্ডনের রয়্যাল ব্রম্পটন হাসপাতাল এবং হেয়ারফিল্ড হাসপাতাল তাদের প্রয়োজনীয় সরঞ্জাম কেনার জন্য সাহায্যের আবেদন করেছিল। তাই হাসপাতাল দু’টিকে অর্থ সাহায্যের জন্য বাটলার তাঁর বিশ্বকাপ ফাইনালের জার্সি নিলামে তোলার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছিলেন। যে জার্সিতে বিশ্বকাপ স্কোয়াডে থাকা বাটলারের প্রত্যেক সতীর্থের স্বাক্ষর ছিল।

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ