স্টাফ রিপোর্টার, জলপাইগুড়ি: ২৩শে মে ভোটগণনা৷ তার আগে সাজো সাজো রব জলপাইগুড়ি জুড়ে৷ কড়া নিরাপত্তায় মুড়ে রাখা হয়েছে স্ট্রং রুম৷ ২৩ শে মে সকাল থেকেই শুরু হয়ে যাবে ভোটগণনা৷ মাঝে আর বাকি দুই দিন৷

ফলে প্রস্তুতি চরমে৷ এই প্রস্তুতি পর্বে জলপাইগুড়ি লোকসভা কেন্দ্রের স্ট্রং রুম পরিদর্শন করে গেলেন জেলাশাসক তথা জেলা নির্বাচন আধিকারিক শিল্পা গৌরিসারিয়া।

উত্তরবঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয়ের জলপাইগুড়ি দ্বিতীয় ক‍্যাম্পাসে রয়েছে জলপাইগুড়ি লোকসভা কেন্দ্রের স্ট্রং রুম। কড়া নিরাপত্তার ঘেরাটোপে রয়েছে গোটা এলাকা। কাক পক্ষী ঢোকারও সম্ভাবনা নেই সেখানে।

জেলাশাসক শিল্পা গৌরিসারিয়া বলেন, ভোট গণনার সমস্ত প্রস্তুতি হয়ে গিয়েছে। যে পদ্ধতিতে সাধারণত ভোট গণনা হয় সেভাবেই গণনা হবে। প্রতিটি বিধানসভা কেন্দ্রকে আলাদা ভাগ করে দেওয়া রয়েছে। সেই অনুযায়ী ভোট গণনা হব। নির্বাচন কমিশনের নির্দেশ মেনেই সমস্ত প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে।

জলপাইগুড়ি রাজনীতি বরাবরই আবর্তিত হয় বিস্তীর্ণ চা বাগান ঘিরে৷ অনেক সময় ভোটের ফলের নির্ণায়ক ফ্যাক্টর হয়ে ওঠে এই চাবাগানের জীবন৷ চা-বাগানের ভোটাররা তাই ভোটবাক্সের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ৷ এবারের ভোটেও সেই ছাপ পড়তে চলেছে বলে মন রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের৷ বাঙালি, নেপালি ও আদিবাসি, সব মিলিয়ে মিশ্র জাতির ভোটার এই লোকসভা কেন্দ্রে৷