জলপাইগুড়ি: ক্ষুব্ধ জনতা আগুন ধরিয়ে দিচ্ছে একের পর এক বাসে। জ্বলছে বাস। আর তা দেখে দিশেহারা বহু যাত্রী। শনিবার সকালে জলপাইগুড়ি মোহিতনগর এলাকায় চিত্রটা ঠিক এরকমই।  বাসের ধাক্কায় এক ছাত্রীর মৃত্যু ঘিরে এমন জ্বলন্ত পরিস্থিতি তৈরি হয় ওই এলাকায় ।

মাত্র দু দিন আগে পূর্ব বর্ধমানের গলসিতে বালি খাদানের লাগোয়া বাড়িতে ট্রাক ঢুকে কয়েকজনের মৃত্যু হয়েছে। তার জেরে একের পর এক ট্রাকে আগুন ধরানোর ঘটনা ঘটে। এবার জলপাইগুড়িতে দুর্ঘটনার জেরে পরপর বাসে আগুন ধরানো হল। সরকারি বাসেও ভাঙচুর হয়েছে।

আরও পড়ুন- বিজেপি নেতার মুখে মমতার ঢালাও প্রশংসা

নিহত ছাত্রীর নাম ইশা চক্রবর্তী। বাড়ি রানিনগরে। এদিন সকালে ইশা স্কুটি চালিয়ে তার দাদার সঙ্গে বাড়ি থেকে জলপাইগুড়ি শহরের দিকে যাচ্ছিল। ময়নাগুড়ির দিক থেকে আসা একটি সরকারি বাস তাদের স্কুটিকে ধাক্কা মারে বলে অভিযোগ। এতে ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় ইশার। জখম হয় ইশার দাদা।

খবর ছড়িয়ে পড়তেই জলপাইগুড়ি রানিনগর এলাকায় উত্তেজনা ছড়ায়। উত্তেজিত জনতা একের পর এক বাসে আগুন ধরিয়ে দেন। এরপর ঘটনাস্থলে আসে কোতয়ালি থানার পুলিশ। কোনও রকমে উত্তেজিত জনতাকে ছত্রভঙ্গ করা হয়।