স্টাফ রিপোর্টার, তমলুক: ভ্যালেন্টাইন্স ডে’তে প্রিয়জনের সঙ্গে একান্তে সময় কাটাতে চান? সঙ্গে যদি পছন্দের খাবার সঙ্গে থাকে তাহলে তো বিষয়টা একেবারে জমে যায়৷ সেই খাওয়ার যদি আপনার কাছে পৌঁছে যায় তাহলে কেমন হয়! ভাবছেন তো? হ্যাঁ এই পরিষেবাই মিলছে মহিষাদলে।

প্রিয়জনকে সঙ্গে নিয়ে সময় কাটানোর জন্য রয়েছে বেশ কয়েকটি পর্যটন কেন্দ্র। মহিষাদল রাজ বাড়ি, রাজগড়, গেঁওখালী ত্রিবেণী সঙ্গম, রূপনারায়ন নদীর চর সহ একাধিক জায়গা। মহিষাদল এলাকার ১০ কিমি মধ্যে যে কোন প্রান্তে বসে প্রিয়জনের পছন্দমত খাওয়ার পেতে চান? তাহলে আপনাকে শুধু প্লে স্টোরে গিয়ে যাযাবর ফুড ডেলিভারি অ্যাপে গিয়ে ক্লিক করতে হবে। আর ক্লিক করলেই আপনার পছন্দের খাওয়ার অর্ডার করতে পারবেন।

আপনার অর্ডার করা সেই খাবার ৩০ মিনিট থেকে ৬০ মিনিটের মধ্যে পৌঁছে যাবে। আপনি যদি আপনার প্রিয়জনকে নিয়ে নদীর চরে বসে থাকেন কিংবা কোন এক পার্কের কোনে বসে সময় কাটান৷ সেখানেও পৌঁছে যাবে আপনার পছন্দের খাওয়ার। শুধু তাই নয় ভ্যালেন্টাইন্স ডে’র জন্য পরিষেবায় বিশেষ ছাড়ের ব্যবস্থা থাকছে।

যাযাবর ফুড ডেলিভারি সংস্থার কর্ণধার সাহেব সাঁতরা জানান, বর্তমান সময়ে সকলেই ব্যস্ত। সময় হয়ে ওঠে না হোটেল বা রেস্টুরেন্টে গিয়ে কিছু খাওয়ার। সেই সমস্ত ব্যস্ত মানুষে সুন্দর পরিষেবা তুলে ধরার ব্যবস্থা করা হয়েছে। ইতিমধ্যে ৮ থেকে ১০ জন ডেলিভারি বয় নিযুক্ত হয়েছে। অর্ডারের সঙ্গে সঙ্গে আমরা তাদের কাছে কম সময়ের মধ্যে তাদের পছন্দের খাওয়ার পৌঁছে দেওয়ার চেষ্টা করছি৷

তিনি আরও জানান, মাত্র ২০ টা পরিষেবার মাধ্যমে তা পৌঁছে দেওয়া হচ্ছে। সেই সঙ্গে কোন ব্যক্তি একাধিক অর্ডার করলে তার জন্য বিশেষ ছাড়ের ব্যবস্থা থাকছে। ভ্যালেন্টাইন ডে’র জন্য বিশেষ ছাড়েরও ব্যবস্থা করা হয়েছে। মহিষাদল ব্লকের যে কোন প্রান্তে থাকুক না কেন আমরা পৌঁছে দেবো অর্ডারের খাওয়ার৷

ব্যবসায়ী দীপ দাস, তুফান অধিকারীর মতে, ব্যবসার চাপে হোটেল বা রেস্টুরেন্টে গিয়ে খাওয়ার সুযোগ পাওয়া যায় না। জাজাবর ফুড ডেলিভারি পরিষেবা চালু হওয়ার পর থেকে আমাদের ভীষণ সুবিধে হয়েছে।