ইন্টারনেট থেকে সংগৃহীত

নয়াদিল্লি: স্মৃতি ইরানির বিরুদ্ধে ভুয়ো শিক্ষাগত যোগ্যতা উল্লেখ করার অভিযোগ। এবার এই শিক্ষাগত যোগ্যতা ইস্যুতেই পাল্টা জবাব দিল বিজেপি। রাহুলের বিরুদ্ধে ভুয়ো শিক্ষাগত যোগ্যতা দেওয়ার অভিযোগ আনলেন অরুণ জেটলি।

শনিবার নিজের ফেসবুকের ব্লগে তিনি লিখেছেন, রাহুলের শিক্ষাগত যোগ্যতা নিয়ে অনেক প্রশ্ন রয়েছে। তিনি জানিয়েছেন, রাহুল গান্ধীর শিক্ষাগত যোগ্যতা নিয়ে পাবলিক অডিট হয়েছিল। আর সেখানে অনেক প্রশ্নের উত্তর পাওয়া যায়নি। তাঁর রেকর্ড নাকি রয়েছে মাস্টার ডিগ্রি ছাড়াই এম ফিল করেছেন তিনি। এমনটাই অভিযোগ জেটলির।

২০০৯ সালে রাহুল গান্ধীর বিদেশি ডিগ্রি নিয়ে বিতর্ক তৈরি হয়েছিল। সেইসময় রাহুল জানিয়েছিলেন যে তিনি ট্রিনিটি কলেজে পড়তেন। ১৯৯৫ তে এম ফিল ডিগ্রি পেয়েছেন।

এদিন সুব্রহ্মণ্য স্বামীও ট্যুইটে একই অভিযোগ এনেছেন। তিনি সংবাদমাধ্যমের তথ্য তুলে ধরে বলেছেন, রাহুল ‘ইকোনমিক প্ল্যানিং’ পেপারে ফেল করেন। ফলে এম ফিল থিসিস লেখার অনুমতি পাননি। স্মৃতিকে বলেন, তিনিও যেন রাহুলকে চ্যালেঞ্জ করেন।

শুক্রবার কংগ্রেস মুখপাত্র প্রিয়াঙ্কা চতুর্বেদী বলেন ,”একটি নতুন ধারাবাহিক আসছে, ‘কিউ কি মন্ত্রী ভি কভি গ্র্যাজুয়েট থি’”। এই বলেই স্মৃতিকে উপহাসের মুখে ফেলে কংগ্রেস।

এবছর মনোনয়ন পেশের সময় স্মৃতিকে স্বীকার করতে হয়, ১৯৯১ সালে মাধ্যমিক এবং ১৯৯৩ সালে উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়েছেন তিনি। স্মৃতি ইরানি ঘোষণা করেছেন তিনি ব্যাচেলর অফ কমার্স শেষ করেননি। বর্তমান বস্ত্রমন্ত্রী স্মৃতি ইরানির শিক্ষাগত যোগ্যতা বিতর্কের বিষয়।