জয়পুর: রাজস্থানে গণপিটুনিতে নিহত কাশ্মীরি কিশোর। নিহত বসিত খান কাশ্মীরের কুপওয়ারার বাসিন্দা। পরিবারের আর্থিক দুর্দশা ঘোঁচাতে রাজস্থানের জয়পুরে কাজে গিয়েছিল বসিত। সেখানেই গণধোলাইয়ে গুরুতর জখম হয় ওই কিশোর। পরের দিন হাসপাতালে মৃত্যু হয় নিরীহ কিশোরের।

আবারও গণপিটুনি রাজস্থানে। এবার নিশানায় কাশ্মীরি কিশোর। কুপওয়ারার বসিত খান জয়পুরে একটি পার্টটাইম কাজে গিয়েছিল। হতদরিদ্র পরিবারে আর্থিক সচ্ছলতা আনতে ভিনরাজ্যে গিয়ে চাকরি করত বসিত। ৫ ফেব্রুয়ারি রাতে বসিতকে বেধড়ক মারধর করে কয়েকজন যুবক। সেই সময় বসিতের সঙ্গেই ছিল তার বন্ধু রফিক। হামলাকারীদের বাধা দিতে গেলে রফিককেও মাটিতে ফেলে মারধর করে দুষ্কৃতীরা। পরে বাড়ি ফেরার পথে মাটিতে পড়ে যায় বসিত। জয়পুরের ভাড়াবাড়িতে ফিরে অনবরত বমি করতে থাকে বসিত। তড়িঘড়ি বসিতকে নিয়ে হাসপাতালে যায় বন্ধু রফিক। চিকিৎসকরা দ্রুত ওই কিশোরের মস্তিস্কে অস্ত্রোপচার করেন। পরের দিন হাসপাতালে মৃত্যু হয় বসিত খানের।

কাশ্মীর ছেড়ে জয়পুরে একটি বেসরকারি সংস্থায় চাকরি করত বসি খান নামে ওই কিশোর। মাঝেমধ্যে কাশ্মীরের বাড়িতে ফিরত সে। গত ৫ ফেব্রুয়ারি কাজ সেরে বাড়ি ফেরার পথে হঠাৎই কয়েকজনের সঙ্গে বচসায় জড়িয়ে পড়ে বসিত। সেই সময় তার সঙ্গেই ছিল বন্ধ রফিক। জানা গিয়েছে, বচসার পরই আচমকা বসিতের মাথায় ভারী কিছু বস্তু দিয়ে আঘাত করে স্থানীয় এক যুবক। তারই জেরে বসিতের মাথায় রক্তক্ষরণ শুরু হয়।

মস্তিষ্কে রক্ষক্ষরণের জেরেই কাশ্মীরের নাবালক বসিত খানের মৃত্যু হয়েছে বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা। এদিকে, কাশ্মীরি কিশোরকে গণপিটুনির ঘটনায় থানায় অভিযোগ দায়ের হয়েছে। অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্তে নেমে ইতিমধ্যেই আদিত্য নামে এক যুবককে পুলিশ গ্রেফতার করেছে। তবে কাশ্মীরি ওই কিশোরের উপর হামলায় ঘটনায় আরও কয়েকজনের যোগ রয়েছে বলে জানতে পেরেছে পুলিশ। সব অভিযুক্তদেরই দ্রুত গ্রেফতার করা হবে বলে জানিয়েছে জয়পুর পুলিশ।