মুম্বই: করোনার জেরে প্রায় গোটা বিশ্ব এখন স্তব্ধ। ভারতেও এই মারণ ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা ৩০০-য় ছুঁয়েছে। এর মধ্যে সবচেয়ে বেশি আক্রান্তের সংখ্যা মহারাষ্ট্রে। তাই বন্ধ হয়েছে বলিউডের কাজও। বন্ধ হয়েছে সমস্ত ছবির শ্যুটিং। প্রায় প্রত্যেকেই গৃহবন্দি হয়েছেন। অভিনেত্রী জাহ্নবী কাপুর জানালেন গৃহবন্দি অবস্থায় কী করছেন তিনি।

জাহ্নবী একটি ছবি শেয়ার করেছেন ইনস্টাগ্রামে। সেখানে দেখা যাচ্ছে রং, তুলি, খাতা নিয়ে চোখে চশমা পরে ছবি আঁকছেন তিনি। ক্যাপশনে জাহ্নবী লেখেন, সেল্ফ আইসোলেশন প্রোডাক্টিভিটি।

অর্থাৎ বোঝাই যাচ্ছে, এই কদিন গৃহবন্দি থেকে নিজের শিল্পী সত্ত্বাকে জাগিয়ে তুলবেন শ্রীদেবী-কন্যা। তবে শুধু জাহ্ন্বী নন। বলিউডের সুপারস্টার সলমন খানও এভাবেই সময় কাটাবেন। সলমন যে খুব ভালো ছবি আঁকেন সে বিষয় অবহিত তাঁর ভক্তরা। আর সেই শিল্পী সত্ত্বাই এই সেল্ফ কোয়ারেন্টাইনে বাঁচাবে তাঁকে।

সলমন নিজেই ছবি শেয়ার করেছেন ছবি আঁকার। সেখানে ক্যাপশনে লিখেছেন স্কেচিং। সেলেবরাও নিজেদের গৃহবন্দি করেছেন। অর্থাৎ কোরোনার স্টেজ ৩ আটকাতে বাড়িতে থাকা কতটা জরুরি তা স্পষ্ট। আর বাড়িতে থেকেও যে সুসময় কাটানো যায় তাও দেখিয়ে দিচ্ছেন এই তারকারা।

প্রসঙ্গত, বিদেশ থেকে এলেই কোয়ারেন্টাইনে থাকার পরামর্শ দিয়েছে সরকার। এই মুহূর্তে ভারতে মৃতের সংখ্যা ৫ জন। বিশেষজ্ঞরা জানাচ্ছেন করোনা ঠেকাতে আগামী ২ সপ্তাহ খুব গুরুত্বপূর্ণ। তাই সকলকেই বাড়িতে থাকতে বলা হচ্ছে। কলকাতাতেও ইতিমধ্যে ৩ জনের মধ্যে কোভিড ১৯ পাওয়া গিয়েছে।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

জীবে প্রেম কি আদৌ থাকছে? কথা বলবেন বন্যপ্রাণ বিশেষজ্ঞ অর্ক সরকার I।