ফাইল ছবি

নিজস্ব প্রতিনিধি, বারাকপুর: শ্লীলতাহানির অভিযোগে উত্তপ্ত হয়ে উঠল জগদ্দল থানা এলাকা। ঘটনায় পুলিশের হাতে আটক এক স্কুল শিক্ষক। চাঞ্চল্যকর এই ঘটনাটি ঘটেছে উত্তর ২৪ পরগনার জগদ্দল থানার অন্তর্গত দেবশ্রী পল্লী এলাকায়। আটক হওয়া ওই স্কুল শিক্ষকের নাম দীপক চন্দ। শুক্রবার জগদ্দল থানার পুলিশ তাকে শ্যামনগর দেবশ্রী পল্লীর স্কুল থেকে আটক করে। ঘটনাকে কেন্দ্র করে ব্যাপক উত্তেজনা চড়ায় স্কুল চত্বরে। যদিও তাঁকে ফাঁসানো হয়েছে বলে চাঞ্চল্যকর অভিযোগ অভিযুক্ত স্কুল শিক্ষকের।

অভিযোগ তৃতীয় শ্রেণী ও চতুর্থ শ্রেণীর ছাত্রীদের সঙ্গে ওই শিক্ষক বেশ কয়েক মাস ধরে অশালীন আচরণ করছিলেন। বৃহস্পতিবার রাতে তৃতীয় শ্রেণী এক ছাত্রী বাড়িতে গিয়ে ওই স্কুল শিক্ষকের কুকর্ম ফাঁস করে দেয়। এর পরই শুক্রবার ওই স্কুল ছাত্রীর অভিভাবকরা এসে বিক্ষোভ দেখালে বিষয়টা জানাজানি হয়। এরপরই ছুটে আসে অন্যান্য ছাত্রছাত্রীদের অভিভাবকরাও।

ছাত্রছাত্রীদের অভিভাবকরা অভিযুক্ত স্কুল শিক্ষক দীপক চন্দের বরখাস্তের দাবি করে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করে। পরে স্কুলের অন্যান্য শিক্ষক-শিক্ষিকাদের ঘেরাও করে বিক্ষোভ দেখাতে থাকে। ঘটনাকে কেন্দ্র করে ব্যাপক উত্তেজনা ছড়ায়। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছয় জগদ্দল থানার বিশাল পুলিশ। দেবশ্রী পল্লী শ্রীমা জি এস এফ পি স্কুল থেকে হাতেনাতে অভিযুক্ত দীপক চন্দকে আটক করে নিয়ে যায় পুলিশ। গোটা ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে জগদ্দল থানার পুলিশ। উত্তেজনার জেরে স্কুল চত্তরে পুলিশ পিকেটিং বসানো হয়েছে।