মেলবোর্ন: পারথে হেরে উঠে বিরাট কোহলি স্পষ্ট জানিয়েছিলেন যে, পিচ পড়তে কোথাও একটা ভুল করেছিলেন৷ পিচ দেখে তার মনে হয়েছিল চার পেসারই যথেষ্ট৷ হাতে রবীন্দ্র জাদেজার মতো স্পিনার থাকা সত্ত্বেও তাঁকে ব্যবহারের কথা ভাবেননি তিনি৷ স্পিনারদের কথা বিবেচনা না করেই বিপর্যয় ঘটে৷

ওয়াকার নবনির্মিত স্টেডিয়ামে নাথান লায়লের বোলিং এবং ম্যাচ শেষে স্পিনারের প্রয়োজনীয়তা নিয়ে কোহলির এমন মন্তব্যের পর দল নির্বাচনে ভারতীয় টিম ম্যানেজমেন্টের ব্যর্থতা নিয়ে প্রশ্ন উঠতে শুরু করে৷ গাভাসকরের মতো বিশেষজ্ঞরা সরাসরি কাঠগড়ায় তোলেন কোচ শাস্ত্রী ও ক্যাপ্টেন কোহলিকে৷ পরে সানির সঙ্গে সুর মেলান আরও অনেকেই৷

আরও পড়ুন: গাভাসকরদের পাল্টা দিলেন শাস্ত্রী

মেলবোর্ন টেস্টের আগে ল নির্বাচন নিয়ে বিকর্ক ধামা চাপা দিতে নতুন তত্ত্ব খাড়া করলেন কোচ শাস্ত্রী৷ সাংবাদিকের সঙ্গে কথা বলতে গিয়ে ভারতীয় কোচ বলেন, পারথ টেস্টের সময় সম্পূর্ণ ফিট ছিলেন না জাদেজা৷ অর্থাৎ তিনি চোট বয়ে বেড়াচ্ছেন অজি সফরে৷

শাস্ত্রী বলেন, ‘অস্ট্রেলিয়ায় আসার দিন চারেক পর কাঁধের সমস্যার জন্য ইনজেকশন নিতে হয়েছিল জাদেজাকে৷ ইনজেকশন যথাযথ কাজ করতে একটু সময় লাগে৷ স্বাভাবিকভাবে পার্থ টেস্টের সময় জাদেজা ৭০-৮০ শতাংশ ফিট ছিল৷ তাই ওকে খেলানোর ঝুঁকি নেওয়া হয়নি৷ মেলবোর্নে ৮০ শতাংশ ফিট হলেও জাদেজাকে খেলানো হবে৷’

আরও পড়ুন: উৎসবের আবহে অনুরাগীদের ‘সেরা সেলফি’ উপহার পান্ডিয়ার

জাদেজার এই চোটের তত্ত্ব সামনে আসের পরেই বিতর্কের আগুনে ঘি পড়ে৷ কেননা ঠিক তার আগেই শাস্ত্রী সমালোচকদের জবাব দিতে গিয়ে বলেন যে, জাদেজার প্রসঙ্গ ছাড়া পারথে দল নির্বাচন নিয়ে কোনও ভুল হয়েছিল বলে তিনি মনে করেন না৷ ক্যাপ্টেন যেখানে স্বীকার করে নিয়েছেন নিজেদের ভুল, সেখানে শাস্ত্রীর চোটের প্রসঙ্গ তুলে শাক দিয়ে মাছ ঢাকার প্রচেষ্টা পরিস্থিতি আরও জটিল করে তোলে৷

জাদেজা প্রসঙ্গে কোচ-ক্যাপ্টেনের ভিন্ন মত প্রকাশ করার পর পরিস্থিতি স্বাভাবিক করতে আসরে নামতে হয় বিসিসিআইকে৷ জাদেজার ফিটনেস নিয়ে রীতিমতো বিজ্ঞপ্তি জারি করতে হয় বোর্ডকে৷ যেখানে স্পষ্ট উল্লেখ করা হয় যে, কাঁধের সামান্য সমস্যা থাকলেও জাদেজা এখন পুরোপুরি ফিট এবং বক্সিং ডে টেস্টে মাঠে নামার জন্য প্রস্তুত৷

আরও পড়ুন: কোহলিকে আটকাতে অস্ট্রেলিয়া দলে সাত বছরের লেগস্পিনার

বোর্ডের এমন বিজ্ঞপ্তির বিতর্কের বরফ গলছে না৷ কারণ, পারথ টেস্টের আগে বিজ্ঞপ্তি জারি করে রোহিত এবং অশ্বিনের চোটের কথা জানানো হলেও জাদেজা সম্পর্কে কেন ছবিটা স্পষ্ট করে দেওয়া হয়নি, তা নিয়ে নতুন করে প্রশ্ন তোলেন অনীল কুম্বলের মতো প্রাক্তন তারকা তথা টিম ইন্ডিয়ার প্রাক্তন কোচ৷ জাম্বোর মতে, দলের দুই প্রধান স্পিনারের চোট থাকলে তখনই সেটা স্পষ্ট করে দেওয়া উচিত ছিল৷ তাছাড়া কাঁধে চোট থাকলে পরিবর্ত হিসাবে জাদেজাকে বাউন্ডারিতে ফিল্ডিং করানোর পিছনে কোন যুক্তি ছিল৷ কাঁধের চোট নিয়ে অত দূর থেকে বল ছুঁড়লে চোট বাড়তে পারে, এই বিষয়টা ভেবে দেখা উচিত ছিল টিম ম্যানেজমেন্টের৷’