কলকাতা: সরকার না চাইলেও যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্র-সংসদ নির্বাচন নিয়ে এবার ‘গণভোট’ করার সিদ্ধান্ত নিলো আন্দোলনকারী পড়ুয়ারা৷ বিশ্ববিদ্যালয়ের বাইরে এবার আন্দোলন ছড়িয়ে দেওয়ারও সিদ্ধান্ত নিলো এসএফআই৷ গণভোটের সমর্থনে ও ছাত্র সংসদ নির্বাচনের দাবিতে এবার প্রতিবাদ মিছিলে ডাক দিলেন পড়ুয়ারা৷
আজ বুধবার বিকালে পড়ুয়াদের বৈঠকে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে, যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ে সংসদ নির্বাচন ইস্যুতে এবার ‘বৃহত্তর’ অন্দোলনে নামবে এসএফআই৷ মূলত, ‘হোক কলরব’ অন্দোলনের ‘মডেল’-কেই  এবার সংসদ নির্বাচনে হাতিয়ার করা হবে৷ যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রে খবর, সংসদ নির্বাচনের দাবিতে রাজ্যের আপত্তির বিরোধিতা করে তৃণমূল সরকারকে বিপাকে ফেলতেই আরও কঠোর মনোভাব নিতে চলেছে বাম ছাত্র-সংগঠন এসএফআই৷ সূত্রের খবর, আজ বুধবারের বৈঠকে বাম ছাত্র সংগঠন এসএফআইয়ের পক্ষ থেকে সংসদ নির্বাচনের আন্দোলনকে বিশ্ববিদ্যালয়ের বাইরে ছড়িয়ে দেওয়ার বিষয়ে প্রস্তাব দেওয়া হয়৷ এমনকি, রাজ্য সরকারকে বিপাকে ফেলতে ‘বৃহত্তর’ আন্দোলনে নামারও প্রস্তাব দেওয়া হয়৷ ‘হোক কলবর’ আন্দোলনের ‘মডেল’-কেই আবার ফিরিয়ে আনারও প্রস্তাবে এদিন বেশিরভাগ পড়ুয়ারাই সমর্থ জানান বলে খবর৷
উল্লেখ্য, ছাত্র সংসদ নির্বাচনের দাবি জানিয়ে সোমবার বিকালে রাজ্যপালের সঙ্গে দেখা করেন যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের তিন ছাত্র সংসদের প্রতিনিধি৷ রাজভবনে দাঁড়িয়ে আন্দোলনকারীরা জানিয়ে দেন, তাঁরা তাদের দাবি থেকে পিছিয়ে আসবে না৷ রাজ্যপালের সঙ্গে দেখা করার পর পড়ুয়াদের পরবর্তী আন্দোলন কর্মসূচী ঠিক করতে বুধবার একটি জরুরী বৈঠকও ডাকা হয়৷ বুধবারের এই বৈঠকে আন্দোলনের রূপরেখা নির্ধারণ করেন আন্দোলনকারী পড়ুয়ারা৷ এদিনের এই বৈঠকে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়, চলতি মাসের মধ্যেই নির্বাচনের বিজ্ঞপ্তি জারি করার বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের কর্তৃপক্ষের ওপর আরও চাপ বাড়িয়ে বিশ্ববিদ্যালয় অচল করে দেওয়ারও কর্মসূচি নেওয়া হয়েছে বলে বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রে জানা গিয়েছে৷