ফাইল ছবি

স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: পশ্চিমবঙ্গে বিধানসভা নির্বাচনে অন্তত ৫০ শতাংশ ভোট দলকে পেতেই হবে। বৃহস্পতিবার রাজ্য কমিটির সদস্যদের সঙ্গে ভার্চুয়াল বৈঠকে এই টার্গেট বেঁধে দিলেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জেপি নাড্ডা। দলকে তিনি বলেন, বুথস্তর পর্যন্ত নেতাকর্মীদের কাছে পৌঁছতে হবে।

তাঁদের সবাইকে আমাদের অনুপ্রাণিত করতে হবে। বৃহস্পতিবার, কলকাতায় বিজেপির নবগঠিত রাজ্য কমিটির বৈঠকে দিলীপ ঘোষ, মুকুল রায়দের একাধিক টাস্ক দিয়েছেন নাড্ডা। তিনি স্পষ্ট করে দিয়েছেন, বাংলার সব সাংসদ ও নেতাদের তৃণমূল স্তরে পৌঁছাতে হবে।

প্রত্যেক পদাধিকারীকে কমপক্ষে পাঁচ-সাতটি মণ্ডলে সফর করার নির্দেশ দেন। ওই সাংসদ ও নেতাদের ‘উৎসাহিত’ করার দায়িত্ব আবার রাজ্য বিজেপির সভাপতি দিলীপ ঘোষকে দেওয়া হয়েছে। রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে গিয়ে কর্মীদের নিয়ে বৈঠক করার জন্য দিলীপ ঘোষকে করার জন্য প্রশংসা করেছেন নাড্ডা।

নাড্ডা বলেন, “প্রত্যেক পদাধিকারীকে কমপক্ষে পাঁচ-সাতটি মণ্ডলের সফর করতে হবে। গ্রাম, বুথে শক্তি যাচাই করবেন।” একইসঙ্গে রাজ্যের প্রতিটি বুথে হোয়্যাটসঅ্যাপ গ্রুপ তৈরির কড়া বিধান দেন নাড্ডা। তাতে তিন ধরনের ‘কনটেন্ট’ দেওয়ার নির্দেশ দেন – কেন্দ্র, রাজ্য এবং আঞ্চলিক। কোথায় কোথায় কোন বিষয় তুলে ধরা হবে, সেই ব্যাখ্যাও দেন।

শুধু ‘কনটেন্ট’ তৈরি করলেই হবে না, ১৫ দিন অন্তর নয়া ‘কনটেন্ট’ দিতে হবে বলে জানিয়েছেন নাড্ডা। আত্মনির্ভর ভারতকে এগিয়ে নিয়ে যেতে পশ্চিমবঙ্গের দলীয় নেতাদের অনুরোধ করলেন বিজেপি সর্বভারতীয় সভাপতি জে পি নাড্ডা।

তিনি বলেন,”বাংলার ক্ষুদ্র উদ্যোগপতিদের জন্য ব্যবস্থা নিন। আত্মনির্ভর ভারতকে এগিয়ে নিয়ে যান। এমএসএমই সেক্টরে ঋণ অনুমোদনের উদ্যোগ নিন।” রাজ্যের পাটশিল্পকে পাটশিল্পকে এগিয়ে নিয়ে যেতেও উদ্যোগ নিতে অনুরোধ করেন তিনি।

পচামড়াজাত পণ্যের ফ্যাশনের দুনিয়ায় উজ্জ্বল তাঁর নাম, মুখোমুখি দশভূজা তাসলিমা মিজি।