সৌপ্তিক বন্দ্যোপাধ্যায় , কলকাতা : ঝড় জল যে হবে সেই পূর্বাভাস আগেই ছিল কিন্তু তা যে এমন আকার নেবে কে জানত। অনেকটা গুপি গাইন বাঘা বাইনের ‘তুমি যে ঘরে কে তা জানত’ গানের মতোই করোনা আতঙ্কের মাঝে যেন ঘাপটি মেরে বসেছিল কালবৈশাখী। বিকেল থেকে আভাস দিতে দিতে রাতের শহর ও শহরতলিকে কার্যত উড়িয়ে দিয়েছে কালবৈশাখী।

তখন রাত ১০টা ছুঁই ছুঁই। হাওয়া অফিসের নির্দিষ্ট সময় মাপ অনুযায়ী ৯.৫০। দমদমে শুরু হয় তাণ্ডব। বইতে শুরু করে ঝড়। টানা এক মিনিট ধরে ব্যাপক হাওয়া বইতে থাকে। সর্বোচ্চ ৫৮ কিলোমিটারে উঠে যায় ঝড়ের গতিবেগ। আবহাওয়াবিদদের বিবেচনা অনুযায়ী কলকাতা সংলগ্ন দমদমের এই ঝড় কালবৈশাখী। কারণ এক মিনিটের স্থায়িত্ব , ৪০ কিলোমিটারের বেশি গতিতে হাওয়া। রাত ৮.৫০ নাগাদ ঝড়ো হাওয়া বয়ে যায় আলিপুরের উপর দিয়ে, হাওয়ার গতিবেগ ছিল সর্বোচ্চ ৪২ কিলোমিটার। কিন্তু এক মিনিটের স্থায়িত্ব না হওয়ায় তা কালবৈশাখীর তকমা পায়নি। সবমিলিয়ে রাতের শহরের দুই প্রান্তে দুই চিত্র। একপ্রান্তে কালবৈশাখী অপর প্রান্তে শুধু ঝড়ো হাওয়া। ঘটনাচক্রে যার কোনওটাই এখন চাইছে না মানুষ।

এদিকে হাওয়া অফিসের পূর্বাভাস আজও রবিবারও ঝড় বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে কলকাতা ও তার পার্শ্ববর্তী অঞ্চলে। এমনটাই জানাচ্ছে আলিপুর আবহাওয়া দফতর। সকালের দিকে আকাশ হালকা মেঘলা ছিল। তবে বেলা গড়াতে রোদের দেখা মিলেছে। কিন্তু পরে এই পরিস্থিতির আবারও পরিবর্তন হতে পারে বলে জানাচ্ছে হাওয়া অফিস।

শনিবারও সকালের দিকে রবিবার সকালের মতো ছিল আবহাওয়া। দুপুরের পর থেকে আবহাওয়া অন্যরকম হয়ে যায়। বিকেল থেকে মেঘ গুড়গুড় সঙ্গে। পরে সন্ধ্যাবেলায় শুরু হয় বৃষ্টি। রাতের দিকেও তা ঝড়ের আকার নেয়। ঝড় বৃষ্টির জেরে কলকাতার তাপমাত্রা আবারও নীচের দিকে। আজ রবিবার শহরের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১৯.২ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা স্বাভাবিকের থেকে চার ডিগ্রি কম। সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল গত ২৪ ঘণ্টায় ৩৪.৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা স্বাভাবিক। আর্দ্রতার পরিমাণ সর্বোচ্চ ৮৯ ও সর্বনিম্ন ৩০ শতাংশ। গত ২৪ ঘণ্টায় শহরে বৃষ্টি হয়েছে ৪.৫ মিলিমিটার। কলকাতা সংলগ্ন ১১.৯ মিলিমিটার বৃষ্টি হয়েছে। সকালের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ২১.৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস। সল্টলেকে ৬ মিলিমিটার বৃষ্টি হয়েছে। তাপমাত্রা সর্বনিম্ন ২৩.৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

শনিবার শহরের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ২২.৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা স্বাভাবিকের থেকে এক ডিগ্রি কম ছিল। গত ২৪ ঘণ্টায় কলকাতা লাগোয়া দমদমের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ২৩.২ ডিগ্রি সেলসিয়াস, সল্টলেকে অবশ্য সকাল সকাল তাপমাত্রা পৌঁছে গিয়েছিল ৩০.৬ ডিগ্রি সেলসিয়াসে। ঝড় বৃষ্টিতে রবিবারে তা অনেকটাই কম।

সপ্তম পর্বের দশভূজা লুভা নাহিদ চৌধুরী।