সৌপ্তিক বন্দ্যোপাধ্যায় , কলকাতা : বৃষ্টি বাদলা নেই। ইলিশের মরসুম এসে গেলেও তাই মোহনাতে আসছে না মাছ। এমনটাই জানা যাচ্ছে ইলিশ মাছ সংগঠনের তরফ থেকে। অনেকেই হয়তো জামাইষষ্ঠীতে জামাইকে ইলিশ খাইয়েছেন কিন্তু সে সব মাছ পুরনো বরফের স্টকের মাছে। আসল নতুন মাছ এখনও আসেনি। যতদিন না একটু বৃষ্টির হবে তত দেরী হবে সমুদ্রের টাটকা ইলিশ বাজারে আসতে।

সাধারণত ১৫ জুন দক্ষিণবঙ্গে বর্ষা আসে যায়। তাই ক্যালেন্ডারে ১৫ তারিখ আসতেই সমুদ্রে পাড়ি দিয়েছিল দক্ষিণ চব্বিশ পরগনার প্রায় চার হাজার ট্রলার। তিনদিন কাটতে না কাটতেই ফিরতে শুরু করেছে ট্রলারগুলি। তারা ফিরেছে প্রায় খালি হাতেই। ইলিশ মাছ নেই।

ইলিশ মাছ ফেডারেশনের সদস্য অতুল দাস বলেন , “সমুদ্রে নিম্নচাপ ঝড়ো হাওয়া কিছু নেই। সেটা হলে তবে না মাছ মোহনার দিকে আসবে। কিছুই হচ্ছে না তাই ট্রলার গিয়েও কিছুই পাওয়া যায়নি।” বৃষ্টির দেখা নেই। জালে সামান্য কয়েক কেজি ইলিশ নিয়েই ফিরতে হয়েছে। অতুল দাস বলেন , “একটু ঝড় বৃষ্টি হলেই মাছ এদিকে আসবে। এখন তো কিচ্ছু হচ্ছে না। সবাই তো তাই বর্ষার দিকেই তাকিয়ে রয়েছে।” পাশাপাশি এখন ভরা কোটাল চলছে। তাই সমুদ্রে জাল টানতেও প্রবল অসুবিধা হচ্ছে। গোদের উপর বিষফোঁড়ার মত দেখা নেই মৌসুমী বায়ুর। ঝাঁকের ইলিশ তাই ফাঁকি দিয়ে গেল মরশুমের প্রথম অভিযানে তা বলা যেতেই পারে।

অন্যদিকে, রবিবার বঙ্গোপসাগরের উত্তর উপকূল ঘেঁষে অসমের গোয়ালপারা, আলিপুরদুয়ার এবং গ্যাংটক হয়ে বর্ষা ঢুকছে বাংলায়। হাওয়া অফিস জানায় উত্তরবঙ্গ এবং সিকিমে ঢুকেছে মৌসুমী বায়ু। মেঘ ভাঙা বৃষ্টিতে ভাসছে উত্তর সিকিম, ফুঁসছে তিস্তা-সহ সমস্ত নদী। হাওয়া অফিস জানিয়েছে, দিনক্ষণ স্পষ্ট না হলেও পথ পরিস্কার থাকায় দক্ষিনবঙ্গে বর্ষা আসতে পারে চলতি সপ্তাহের শেষের দিকে। আবার বিহারের দক্ষিণভাগ হয়ে, ঝাড়খণ্ড, এবং পশ্চিমবঙ্গ ও বঙ্গোপসাগরের ওপর নিম্নচাপের সৃষ্টি হয়েছে। তার হাত ধরেই বর্ষা দক্ষিণবঙ্গে আসে না কি আরও অন্য কোনও সিস্টেমের হাত ধরে বর্ষার বৃষ্টি আসবে দক্ষিণবঙ্গে এখন সেদিকেই তাকিয়ে হাওয়া অফিসও।

কলকাতার অবস্থাও তথৈবচ। দিনভর চলছে ঘর্মাক্ত পরিস্থিতি। সকাল থেকেই যথারীতি শুরু হয়েছে অস্বস্তিকর গরম। টানা প্রায় এক মাস ধরে সর্বোচ্চ আর্দ্রতা ৯০ এর উপরে রয়েছে। সেটাই আজ বুধবারও কলকাতাকে ভোগাচ্ছে। ধবার শহরের সর্বোচ্চ আর্দ্রতার পরিমাণ ৯৬ শতাংশ, সর্বনিম্ন ৬৮ শতাংশ। মঙ্গলবার তা ছিল সর্বোচ্চ ৯৫ সর্বনিম্ন ৬৭ শতাংশ। মঙ্গলবার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ২৯.৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস, স্বাভাবিকের থেকে যা দুই ডিগ্রি বেশি। আজ তা হয়েছে ২৬.৪, যা স্বাভাবিক। সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৩৬.০ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা স্বাভাবিকের থেকে তিন ডিগ্রি বেশী।