মুম্বই: আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে একের পর এক রেকর্ড গড়ে চলেছেন বিরাট কোহলি। প্রায় প্রতি ম্যাচেই পিছনে ফেলে দিচ্ছেন একের পর এক কিংবদন্তির নজির। তবে জাদেজাকে টপকে যাওয়া যে তাঁর পক্ষে কখনও সম্ভব নয়, সে কথা নিজের মুখেই স্বীকার করে নেন ভারত অধিনায়ক।

যদিও এক্ষেত্রে রবীন্দ্র জাদেজার কোনও রেকর্ডের দিকে ইঙ্গিত করেননি বিরাট কোহলি। আক্ষরিক অর্থেই পাশাপাশি দৌড়ে জাদেজাকে টপকানো যে তাঁর পক্ষে সম্ভব নয়, সোশ্যাল মিডিয়ায় সেটাই জানিয়েছেন ভিকে।

ইডেন টেস্টের পর টুইটারে একটি ছবি পোস্ট করেন কোহলি। যেখানে দেখা যাচ্ছে জাদেজা ও ঋষভ পন্তের সঙ্গে পাশাপাশি দৌড়চ্ছেন বিরাট নিজে। ছবিতে স্পষ্ট দেখা যাচ্ছে যে, দৌড়ে সবার থেকে এগিয়ে রয়েছেন জাদেজা। ছবির ক্যাপশনে কোহলি লিখেছেন, ‘গ্রুপ কন্ডিশনিং সেশনটা দারুণ লাগে। তবে গ্রুপে যদি জাড্ডু (জাদেজা) থাকে, তবে ওকে টপকে যাওয়া কার্যত অসম্ভব।’

কোহলির ইঙ্গিত স্পষ্ট। ফিটনেসের দিক থেকে তিনি নিজে অনেকের আদর্শ হলেও সতীর্থদের মধ্যে জাদেজাকেই সবার থেকে এগিয়ে রাখছেন কোহলি। বাস্তবিকই রবীন্দ্র জাদেজা এই মুহূর্তে ভারতীয় ক্রিকেট দলের অন্যতম ফিট ক্রিকেটার। দলের সেরা ফিল্ডার তিনি। শুধু টিম ইন্ডিয়ার নয়, এই মুহূর্তে ক্রিকেটবিশ্বের অন্যতম সেরা ফিল্ডারের তকমা পাচ্ছেন জাদেজা। ক্লোজি-ইন ফিল্ডিং হোক অথবা আউট-ফিল্ড, দুরন্ত সব ক্যাচ ধরা ও রান-আউট করার পাশাপাশি দলের হয়ে বেশ কিছু রান অবধারিতভাবে বাঁচিয়ে দেন জাদেজা। সে কারণেই ব্যাট ও বল হাতে ম্যাচে অবদান রাখতে না পারলেও ফিল্ডিংয়ে খামতি পুষিয়ে দেন তিনি।

ঋষভ পন্ত অবশ্য ফিটনেসের দিক দিয়ে কোহলি ও জাদেজার ধারে কাছেও আসেন না। উইকেটকিপিংয়ের সময় জড়তা স্পষ্ট লক্ষ্য করা যায় পন্তের নড়াচড়ায়। সম্প্রতি ব্যাট হাতেও নিজের ছায়ায় ঢাকা পড়ে রয়েছেন ঋষভ। যে কারণে টেস্ট দলের প্রথম একাদশ থেকে ছিটকে গিয়েছেন তিনি। সীমিত ওভারের ক্রিকেটেও জায়গা টলোমলো। ইডেন টেস্ট চলাকালীন তাঁকে জাতীয় স্কোয়াড থেকে ছেড়ে দেওয়া হয় মুস্তাক আলী টি-২০’তে রাজ্য দলের হয়ে প্রতিনিধিত্ব করার জন্য।