কলকাতা: রীতিমতো সস্তায় স্যাভলন ব্র্যান্ডের হ্যান্ড স্যানিটাইজার স্যাশে বাজারে আনল আইটিসি। এককালীন ব্যবহার করা যাবে এমন স্যাশে পাওয়া যাবে একেবারে অর্ধেক টাকায়। সংস্থার বক্তব্য অনুসারে, গোটা বিশ্বে এটাই হবে সবচেয়ে সস্তায় পাওয়া স্যানিটাইজার। একটি সর্বভারতীয় সংবাদ মাধ্যমে এমনটাই খবর।

ওই প্রতিবেদন অনুসারে সংস্থার এক কর্তা জানিয়েছেন, গোটা বিশ্ব যখন একটা স্বাস্থ্য সংকটের মধ্য দিয়ে যাচ্ছে, তখন তারা ‌ চেষ্টা করেছেন তাদের উদ্ভাবনীর মাধ্যমে একটা সমাধানের উপায় দিতে যাতে অতি মহামারী সময় লড়াই করা যায়। এই পরিস্থিতিতে ব্যক্তিগত স্বাস্থ্যগত সুরক্ষা ব্যবস্থার জন্য সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে হচ্ছে যাতে করোনাভাইরাস না ছড়িয়ে পড়ে । সেই অবস্থায় সম্ভবত বিশ্বে সবচেয়ে সস্তায় হ্যান্ড স্যানিটাইজারের স্যাশে আনা হলো।

হু এবং ইউনিসেফের মত সংস্থার ধারণা অনুযায়ী তিন বিলিয়ন লোকের বাড়িতে হাতের জন্য স্বাস্থ্যবিধির ব্যবস্থা নেই। এরপর বিশেষত মধ্য এবং নিম্ন আয়ের মানুষেরা কাজের জন্য বাইরে বেরোলে পরিস্থিতি আরও জটিল হয়।  স্যাভলন স্যানিটাইজার এইরকম স্যাশে ফর্মে যা ডেভলপ করা হয়েছে জিবাউদনের মতো গ্লোবাল লিডারের সহায়তায় একেবারে খুব সস্তায়।

করোনাভাইরাস এই মহামারী সময় আই টি সির নজর ‌ এখন স্যানিটাইজার ব্যবসার দিকে। ফলে সুগন্ধি উৎপাদনের জায়গাটি কাজে লাগানো হচ্ছে অতিরিক্ত ১,২৫,০০০ লিটার হ্যান্ড স্যানিটাইজার উৎপাদনের জন্য। এইজন্য বাজারে আনা হয়েছে নতুন পণ্য যেমন স্যাভলন হেক্সা- একটি অ্যাডভান্স হ্যান্ড স্যানিটাইজার এবং জিরো কন্টাক্ট সারফেস ডিসইনফেকট্যান্ট স্প্রে – যা বিভিন্ন ধরনের ভাইরাস ব্যাকটেরিয়া, ফাঙ্গাস মেরে দিতে পারে বারে বারে স্প্রে করার মাধ্যমে। এই ব্র্যান্ড বিভিন্ন রাজ্য সরকারের সঙ্গে অংশীদারিত্বে চলছে যাতে স্যাভলনের পণ্য‌ পাওয়া যাওয়ার ক্ষেত্রে নিশ্চয়তা থাকে।

পচামড়াজাত পণ্যের ফ্যাশনের দুনিয়ায় উজ্জ্বল তাঁর নাম, মুখোমুখি দশভূজা তাসলিমা মিজি।