কলকাতাঃ অর্থনৈতিক সংকটের সময় খরচ কমাতে সবার আগে কোপ পড়ে তথ্যপ্রযুক্তি ক্ষেত্রে ৷এমনই অভিমত বেঙ্গল চেম্বার অফ কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রি-র সভাপতি বিশ্ববিহারী চট্টোপাধ্যায়ের৷ যদিও সেটা সাময়িক বলে তিনি মনে করেন৷ কারণ এই ক্ষেত্রের গুরুত্ব অগ্রাহ্য করার উপায় নেই তাই কিছুদিনের মধ্যেই খারাপ সময় কাটিয়ে আবার নজর দিতেই হয় এই ক্ষেত্রের দিকে৷ দ্রুতবেগে পরিবর্তন হচ্ছে প্রযুক্তির আর তার সঙ্গে সামঞ্জস্য তো রাখতেই হবে নইলে উপায় নেই বলেই মনে করেন এই শিল্পকর্তা৷

দেশ তথা গোটা দুনিয়ার আর্থিক অবস্থা এখন একটা খারাপ দশার মধ্যে দিয়ে গেলেও সেটাকে সাময়িক বলেই মনে করছেন তিনি৷ এই শিল্পকর্তার অভিমত, সময় সময়ে পদক্ষেপ করতে হবে৷ রমরমা সময়ে যেমন কিছু পদক্ষেপ করা দরকার তেমনই আবার খারাপ সময়েও কিছু পদক্ষেপ করতে হয়৷ সেই পথে হেটে এখন কিছুটা ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে বলেই তাঁর মনে হয়েছে৷

আপাতত ক্ষুদ্রও ও মাঝারি শিল্পের দিকে নজর দেওয়ার কথা বলেছেন তিনি৷ সেকথা বলতে গিয়ে উল্লেখ করেছেন, রাজ্য সরকার এবং বেঙ্গল চেম্বার অফ কমার্স যৌথ ভাবে এই ক্ষেত্রের জন্য কিছু উদ্যোগ নিয়েছে৷ বর্তমানে কর্মী সংকোচনের সমস্যার পাশাপাশি তাঁর পরামর্শ, নজর দেওয়া দরকার কর্মীদের উপযুক্ত প্রশিক্ষণ দিয়ে দক্ষ কর্মী হিসেবে গড়ে তোলার দিকেও ৷ আর সেকথা বলতে গিয়ে তাঁর বণিকসভা কেমন কাজ করছে তারও ব্যাখ্যা করেছেন তিনি ৷ তাছাড়া কেউ নতুন করে ব্যবসা করতে গেলে তাঁকে উপযুক্ত উদ্যোগী হিসেবে গড়ে তুলতে তাদের ইনকিউবেশন সেল কেমন সহায়তা করছে তাও জানিয়েছেন বণিকসভার এই কর্তা ৷

কর্পোরেট জগতে শিল্পকর্তা হিসেবে তিন দশকেরও বেশি সময়ের অভিজ্ঞতা রয়েছে তাঁর৷ দীর্ঘ ২৮ বছর ধরে আইটিসি-র কোম্পানি সেক্রেটারি থাকাকালীন ওই সংস্থার শেয়ার সার্টিফিকেটে তাঁর স্বাক্ষর দেখা গিয়েছে ৷ এক সময় সামলাতে হয়েছে ব্যাট-আইটিসি সংঘাতের মতো জটিল পরিস্থিতি৷ বর্তমানে অবশ্য তিনিই আবার আইটিসি সঙ্গীত রিসার্চ আকাডেমির দায়িত্বে ৷ তিনি চান, শাস্ত্রীয় সঙ্গীতে শুদ্ধতা যেন বজায় থাকে আর সেইজন্য এর প্রশিক্ষণের গুণগত মান বজায় রাখতে সদা সর্বদা নজর রাখতে চান তিনি৷

kolkata24x7এর প্রতিনিধি সিদ্ধার্থ মুখোপাধ্যায়ের সঙ্গে বেঙ্গল চেম্বার অফ কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রি-র সভাপতি বিশ্ববিহারী চট্টোপাধ্যায়ের একান্ত আলাপচারিতায় উঠে এসেছে তাঁর এই সব নানা অভিজ্ঞতার কথা৷