চেন্নাই:আয়কর হানার ফলে জানতে পারা গেল গুরু কল্কি ভগবানের কত সম্পত্তি রয়েছে ৷ যদিও তার খতিয়ে দেখতে গিয়ে চোখ কপালে উঠছে আয়কর আধিকারিকদের। শুধু ভারতীয় টাকাই নয় সেখানে অভিযান চালিয়ে বিপুল পরিমাণ মার্কিন ডলারও উদ্ধার হয়েছে। সোমবার তাঁর একাধিক অফিসে হানা দিয়ে ৪৪ কোটি ভারতীয় টাকার পাশাপাশি ২০ কোটি মার্কিন ডলার মিলেছে ।

এই আয়কর অভিযান শুরু হয়েছিল শনিবার। আয়কর ফাঁকি এবং আয়ের সঙ্গে সঙ্গতিহীন সম্পত্তির অভিযোগে উঠেছিল বিজয় কুমার ওরফে কল্কি ভগবানের বিরুদ্ধে ৷ আর তারই জেরে তাঁর একাধিক ডেরায় তল্লাশি অভিযান চালায় আয়কর দফতর। ওই দিনই উদ্ধার হয়েছিল হিসাব বহির্ভূত নগদ ৯৩ কোটি টাকা। তার সঙ্গে মিলে ছিল সোনা, হিরে ও মূল্যবান ধাতু ও পাথর মিলিয়ে উদ্ধার হয় প্রায় ৪০৯ কোটি টাকার সম্পত্তি। অর্থাৎ সেদিনই ৫০০ কোটি টাকার সম্পত্তির হদিশ মিলেছিল৷ যদিও তার পরেও আয়কর কর্তাদের আতস কাচের নীচে থেকে কল্কি ভগবানের বেআইনি সম্পত্তি সরেনি।

সেই জন্যও সোমবার সকাল থেকেই ফের অভিযান নামে আয়কর দফতরের গোয়েন্দারা। কল্কি ভগবানের ছেলের সংস্থা হোয়াইট লোটাসের চেন্নাই, হায়দরাবাদ, বেঙ্গালুরু, চিত্তুর এবং কুপ্পমের অফিসে দিনভর চলে তল্লাশি চালায়। তখন সেই সব অফিস থেকেই উদ্ধার হতে থাকে বিপুল পরিমাণ দেশি-বিদেশি মুদ্রাও।

দিনের শেষে জানা গিয়েছে, হানা দিয়ে উদ্ধার হয়েছে ভারতীয় মুদ্রায় ৪৪ কোটি টাকা এবং ২০ কোটির মার্কিন ডলার পাওয়া গিয়েছে । ভারতীয় মুদ্রায় যার মূল্য প্রায় ১৪১ কোটি ৭৫ লক্ষ ২০ হাজার টাকা। এছাড়াও রয়েছে ৯০ কেজি সোনা। বাজার দর হিসেবে তার মূল্য প্রায় সাড়ে তিন কোটি টাকা। অর্থাৎ সব মিলিয়ে এদিন মিলেছে প্রায় ২০০ কোটির সম্পত্তি।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

জীবে প্রেম কি আদৌ থাকছে? কথা বলবেন বন্যপ্রাণ বিশেষজ্ঞ অর্ক সরকার I।