নয়াদিল্লি: করোনার সংক্রমণ রুখতে মাস্ক পরা ছাড়া অন্য উপায় নেই। শুরু থেকেই একথা বারবার বলে চলেছেন বিশেষজ্ঞরা। বুধবার দেশের ৭ রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠকেও করোনা এড়াতে মাস্ক পরার প্রয়োজনীয়তার আরও একবার উল্লেখ করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

করোনা হানায় দেশের ৭ রাজ্যের অবস্থা সবচেয়ে খারাপ। পরিস্থিতি পর্যালোচনায় এদিন মহারাষ্ট্র, অন্ধ্রপ্রদেশ, কর্নাটক, উত্তরপ্রদেশ, তামিলনাড়ু, দিল্লি ও পঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক করেছেন প্রধানমন্ত্রী।

স্বাস্থ্যমন্ত্রকের পরিসংখ্যান বলছে দেশের মধ্যে ৭টি রাজ্যে করোনার প্রকোপ সবচেয়ে বেশি। দেশের মোট করোনা আক্রান্তের মধ্যে ৬৫ শতাংশ রোগীই এই ৭ রাজ্যের। করোনা মোকাবিলায় রাজ্যগুলি কী কী পদক্ষেপ করছে বা কেন্দ্রের তরফে রাজ্যগুলিকে আরও কী কী সহায়তা দেওয়া যায় এদিন তা নিয়েই ৭ রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে ভিডিও কনফারেন্স মারফত বৈঠক করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। সেই বৈঠকেই আবারও মাস্ক পরার প্রয়োজনীয়তার কথা উল্লেখ করেছেন মোদী।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘‘মাস্ক পরার অভ্যাস করাটা বেশ কঠিন। তবে মাস্ককে দৈনন্দিন জীবনের অংশ করে নিতেই হবে। তা না হলে প্রত্যাশিত ফল মিলবে না।’’ আনলক ফোর পর্যায়ে এসেও দেশে লাগামছাড়া সংক্রমণ। রাজ্যে-রাজ্যে বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা।

বুধবার রাত পর্যন্ত ওয়ারর্ল্ডোমিটারের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী দেশে নোভেল করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা ৫৭ লক্ষের গণ্ডি ছাড়িয়েছে। তবে ইতিমধ্যেই ৪৬ লক্ষেরও বেশি মানুষ করোনামুক্ত হয়েছেন। এখনও পর্যন্ত দেশে করোনায় মৃত্যু হয়েছে ৯০ হাজার ৬১৯ জনের।

দেশের মধ্যে সর্বাধিক সংক্রমণ মহারাষ্ট্রে। স্বাস্থ্যমন্ত্রকের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী বুধবার রাত পর্যন্ত মহারাষ্ট্রে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে ১২ লক্ষ ৪২ হাজার ৭৭০। সেরাজ্যে করোনায় মৃত্যু হয়েছে ৩৩ হাজারেরও বেশি মানুষের। সংক্রমণের গ্রাফ ঊর্ধ্বমুখী অন্ধ্রপ্রদেশেও।

দক্ষিণের এই রাজ্যে এখনও পর্যন্ত ৬ লক্ষ ৩৯ হাজারেরও বেশি মানুষ করোনায় সংক্রমিত হয়েছেন। দক্ষিণের আরও এক রাজ্য কর্নাটকেও করোনার সংক্রমণের বিদ্যুৎ গতি। কর্নাটকে নোভেল করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে ৫ লক্ষ ৩৩ হাজার ৮৫০। সংক্রমণ ছড়াচ্ছে তামিলনাড়ুতেও। সেরাজ্যে বুধবার রাত পর্যন্ত করোনা আঈক্রান্ত হয়েছেন ৫ লক্ষ ৫২ হাজার ৬৭৪ জন।

উত্তরপ্রদেশেও চোখ রাঙাচ্ছে করোনা। সেরাজ্যে করোনায় সংক্রমিতের সংখ্যা বেড়ে ৩ লক্ষ ৬৪ হাজার ৫৪৩। একইভাবে পঞ্জাবে ১ লক্ষ ১ হাজার ৩৪১, দিল্লিতে বুধবার রাত্ পর্যন্ত ২ লক্ষ ৫৩ হাজার ৭৫ জন করোনায় সংক্রমিত হয়েছেন।

বুধবারের বৈঠকে এই রাজ্যগুলিকে করোনা মোকাবিলায় একগুচ্ছ পরামর্শ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। প্রতিটি রাজ্যেই যাতে কোভিড প্রোটোকল মেনে চলার ব্যাপারে বাড়তি সতর্কতা নেওয়া হয় সেব্যাপারেও মুখ্যমন্ত্রীদের আবেদন জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী।

প্রশ্ন অনেক-এর বিশেষ পর্ব 'দশভূজা'য় মুখোমুখি ঝুলন গোস্বামী।