ম্যাঞ্চেস্টার: পারদ চড়ছে। রবিবাসরীয় ওল্ড ট্র্যাফোর্ডের গ্যালারিতে ঘটবে আবেগের বিস্ফোরণ। পাকিস্তানের বিরুদ্ধে নামার আগে উত্তাপের পরিমন্ডলে ম্যাঞ্চেস্টারের গনগনে আঁচটা ভালোই টের পাচ্ছেন ভারত অধিনায়ক। তাই ম্যাচের আগেরদিন সমর্থকদের শান্ত থেকে ম্যাচ উপভোগ করার আহ্বান জানালেন বিরাট কোহলি।

বিশ্বকাপের মেগা আসরে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে ১০০ শতাংশ জয়ের ধারা বজায় রাখার লক্ষ্য নিয়েই রবিবার মাঠে নামবে কোহলি অ্যান্ড কোম্পানি। লক্ষ্য ৭-০। স্বাভাবিকভাবেই অতীত পরিসংখ্যান সেইসঙ্গে সাম্প্রতিক পারফরম্যান্সের ভিত্তিতে চার্জড আপ মেন ইন ব্লু। গত ম্যাচে যে অস্ট্রেলিয়া পর্যুদস্ত হয়েছে ভারতীয় দলের কাছে সেই অস্ট্রেলিয়ার কাছে হেরেই রবিবার মহারণে নামবে পাকিস্তান। তাই টিম কোহলির মত মাঠের বাইরে চার্জড আপ ভারতীয় সমর্থকেরাও। উল্টোদিকে বছর দু’য়েক আগে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি ফাইনালে ভারতকে হারানোর কথা মনে করিয়ে হুঙ্কার দিচ্ছেন পাক সমর্থদেরও। দু’দেশের এই ক্রিকেট যুদ্ধের আঁচ গিয়ে পড়েছে বিজ্ঞাপনের দুনিয়াতেও।

আরও পড়ুন: একনজরে বিশ্বকাপে ভারত-পাকিস্তান বিগত সাক্ষাৎকারের ফলাফল

এমন ম্যাচের আগেরদিন সাংবাদিক সম্মেলনে সমর্থকদের উদ্দেশ্যে বার্তা দিয়ে ভারত অধিনায়ক বলেন, ‘এটা নিছকই একটা ক্রিকেট ম্যাচ। খেলা দেখুন এবং উপভোগ করুন। পাকিস্তান ম্যাচকে আলাদা করে গুরুত্ব দিচ্ছি না আমরা। আর পাঁচটা ম্যাচের মতোই এই ম্যাচের সমান গুরুত্ব।’ একইসঙ্গে গ্যালারি ভর্তি সমর্থনের কথা মাথায় রেখেও ভারত অধিনায়ক বলেন, ‘পাকিস্তান ম্যাচের জন্য ড্রেসিংরুমের পরিবেশে কিছু পরিবর্তন হয়নি। দেশের হয়ে অন্যান্য ম্যাচ খেলার সময় যে পরিমাণ আবেগ কাজ করে এবং অ্যাড্রিনালিন ক্ষরন হয়, পাক ম্যাচও সেই একই আবেগ কাজ করবে।’

আরও পড়ুন: ভারত-পাক মহারণে কোহলি-আমের ফেস-অফ

পাশাপাশি কোহলির মতে দেশের জার্সি গায়ে চাপালে ক্রিকেটারদের প্রত্যেক ম্যাচকে সমানচোখে দেখা উচিৎ। আমরা বিশ্বের সেরা দল তাই নিজেদের শক্তি বুঝে আমাদের এগোতে হবে। ২০১২-১৩ পর দু’দেশের মধ্যে বন্ধ দ্বিপাক্ষিক সিরিজ। প্রায় একবছর পর আন্তর্জাতিক ক্রিকেট সার্কিটে মুখোমুখি দুই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী। স্বাভাবিকভাবেই পাকিস্তানের এই দল ভারতের কাছে অনেকটাই অচেনা। কিন্তু ভারত অধিনায়ক কোনও অজুহাত খাড়া করতে রাজি নন। তাঁর মতে, ‘দলের ১১ জন ক্রিকেটার মাঠে নেমে নিজেদের দায়িত্ব যথাযথ পালন করলে দিনের শেষে আমরাই হাসিমুখে মাঠ ছাড়ব।’