বেঙ্গালুরু: ইতিহাস সৃষ্টি করল ইসরো।  নির্ধারিত ঠিক সময়ে সবথেকে শক্তিশালী রকেট মহাকাশে পাঠাল ভারতের মহাকাশ গবেষণা সংস্থা ইসরো।  আজ সোমবার শ্রীহরিকোটা থেকে ওড়ানো হয় GSLV Mk III. জানা গিয়েছে, ইতিহাস সৃষ্টি করে মহাকাশে পৌঁছে গিয়েছে এই রকেট।

আজ থেকে ১৩ বছর আগে এই রকেট পাঠানোর পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছিল। কিন্তু আমেরিকা CE-20 ইঞ্জিন ব্যবহার করতে বাধা দেওয়ায় সেটা সম্ভব হয়নি। প্রায় তিন দশক নিয়ে ধরে এই প্রজেক্ট নিয়ে হয়েছে গবেষণা। ইসরোর এই সাফল্যই খুলে দেবে ভারতের দ্বিতীয় চন্দ্র অভিযান চন্দ্রায়ন-২-এর পথ। যেখানে চাঁদে মানুষ পাঠানোর পরিকল্পনা রয়েছে ভারতীয় মহাকাশ বিজ্ঞানীদের।

ইসরোর প্রাক্তন চেয়ারম্যান কস্তুরিরঙ্গন জানিয়েছেন, প্রায় ১৫বছর ধরে এই রকেট বানানো হয়েছে৷ খরচ পড়েছে ৩০০কোটি টাকা৷ এই পরীক্ষা সফল হলে ভারত মহাকাশচারীদের বহন করতে পারে, এমন উপগ্রহ কক্ষপথে পাঠাতে পারবে৷ আপাতত এই পরীক্ষার লক্ষ্য হল অন্তত চার টনের উপগ্রহ কক্ষপথে পাঠানো৷

যদিও GSLV Mark III-র ছয় থেকে দশ টন ওজনের উপগ্রহ কক্ষপথে স্থাপনের সামর্থ রয়েছে৷ ড. কস্তুরিরঙ্গন বলেছেন, এই পরীক্ষা সফল হলে ভারত স্বনির্ভরতার এক নতুন ধাপ ছুঁয়ে ফেলবে৷ মহাকাশচারী বহনের উপযোগী উপগ্রহ কক্ষপথে স্থাপনের জন্য ভারতকে আর অন্য কারওর মুখাপেক্ষী হতে হবে না৷

GSLV Mark III-র ওজন কমপক্ষে ২০০টি ভারতীয় হাতির সমান৷ মাধ্যাকর্ষণের টান ছাড়িয়ে সত্যিই যদি এই রকেট মহাকাশে পৌঁছাতে পারে তাহলে তৈরি হবে এক নয়া ইতিহাস তৈরি হবে ভারতের।