নয়াদিল্লি: দেশবাসীকে বড়সড় সুখবর দিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। নিজের ‘মন কি বাত’ অনুষ্ঠানে রবিবার তিনি জানালেন ইসরো (ইন্ডিয়ান স্পেস রিসার্চ অর্গানাইজেশন) সূর্যকে জানতে স্যটেলাইট উৎক্ষেপণের পরিকল্পনা করছে।

মোদী বলেন, জ্যোতির্বিদ্যার ক্ষেত্রে ভারত বেশ উন্নত, এবং আমরা এই ক্ষেত্রে আরও এগিয়ে যেতে উদ্যোগ নিয়েছি। ইসরোর অ্যাস্ট্রোস্যাট নামে একটি স্যাটেলাইট রয়েছে। এছাড়াও, ইসরো ‘আদিত্য’ নামে একটি স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণের প্রস্তুতি নিচ্ছে, যা কিনা সূর্য সম্পর্কে জানাবে।”

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী জানান, ভারতে সারা দেশ জুড়ে ছড়িয়ে ছিটিয়ে আছে অসংখ্য টেলিস্কোপ। পুনের কাছে রয়েছে একটি বিশাল টেলিস্কোপ। এছাড়াও কোড়াইকান্নাল, ঊডাগামান্ডালা, গুরু শিখর, হানলে লাদাখ সহ অন্যান্য জায়গাতেও এমন শক্তিশালী টেলিস্কোপ রয়েছে বলেও তিনি জানান।

মোদী এই অনুষ্ঠানে আরও জানান, ২০১৬ সালে বেলজিয়ামের তখনকার প্রধানমন্ত্রী ও তিনি নৈনিতালে একটি টেলিস্কোপ উদ্বোধন করেছিলেন। যা কিনা সারা এশিয়ার মধ্যে সর্ববৃহৎ টেলিস্কোপ বলেও পরিচিত বলে জানান তিনি।

প্রধানমন্ত্রী মোদী আরও বলেন, দেশের নাগরিকদের জ্যোতির্বিজ্ঞানের ক্ষেত্রে ভারতের কৃতিত্বকে বোঝার জন্য চেষ্টা করা উচিত। তিনি বলেন, যে দেশের তরুণ বিজ্ঞানীরা শুধুমাত্র বৈজ্ঞানিক ইতিহাস জানার জন্য উৎসাহী তাই নয়, পাশাপাশি তারা জ্যোতির্বিদ্যার ভবিষ্যত সঠিক তৈরি করতেও দৃঢ় প্রতিজ্ঞ।

উল্লেখ্য, মোদীর ‘মন কি বাত’ অনুষ্ঠানের দিন কয়েক আগেই ইসরোর তরফে ২০২০ সালের জন্য কী কী পরিকল্পনা করয়েছে তা জানিয়ে একটি তালিকা প্রকাশ করা হয়। ভারত যে সূর্য সমর্কে জানতে ‘আদিত্য’ নামে একটি স্যাটেলাইট পাঠাবে তাও উল্লেখ ছিল ওই তালিকায়। ইসরোর চিফ কে শিবান জানিয়েছিলেন, ২০২০ সালের মাঝামাঝি সময়েই ওই আদিত্য এল১ কে উৎক্ষেপণ করা হবে।

শুধু যে সূর্যের সম্পর্কে জানতে ইসরো স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণ করবে এমন নয়। ২০২০ সালের ডিসেম্বর মাসে প্রথম মানবহীন টেস্ট ফ্লাইট হিসেবে গগনযানও লঞ্চ করা হবে বলে জানানো হয়েছে ইন্ডিয়ান স্পেস রিসার্চ অর্গানাইজেশন – এর তরফে। এরই সঙ্গে আগামী বছরেই অত্যাধুনিক কমিউনিকেশন স্যাটেলাইট জি স্যাট, জি স্যাট ওয়ান, 12R, রিস্যার্ট টু বি আর 2 এবং মাইক্রো স্যাট নামে বেশ কয়েকটি উপগ্রহ লঞ্চ করার কথাও জানানো হয়েছে।