বেঙ্গালুরু: প্রত্যেক মাসে একটি করে রকেট লঞ্চ করবে ভারতের মহাকাশ গবেষণা সংস্থা ইসরো। ২০১৮ তেই এই লক্ষ্যমাত্রা নিয়েছে ভারতীয় সংস্থা। মহাকাশে স্যাটেলাইট পাঠাতে অন্ধ্রপ্রদেশের শ্রীহরিকোটা থেকে রকেটগুলি লঞ্চ করা হবে বলে জানিয়েছেন ইসরোর চেয়ারম্যান কিরণ কুমার।

মহাকাশ অভিযানের জন্য ২০১৮-১৯ ও ২০১৯-২০ অর্থবর্ষে বরাদ্দ বাড়বে বলেও জানিয়েছেন তিনি। ২০১৭-১৮ অর্থবর্ষে ইসরো ৯০০০ কোটি টাকা পেয়েছিল।

কিছুদিনের মধ্যেই Cartosat-2E রিমোট সেন্সিং স্পেসক্রাফট পাঠাবে ইসরো। যাতে ২৮টি ন্যানো ও মাইক্রো স্যাটেলাইট পাঠানো হবে। ডিসেম্বরে না হলে জানুয়ারিতেই পাঠানো হবে ওই স্যাটেলাইট। এছাড়া ২০১৮-এর প্রথমার্ধেই চন্দ্রায়ন মিশন হবে ইসরোর।

এছাড়া, ২০১৯-এই সূর্যকে ছোঁবে ভারতের মহাকাশ গবেষণা সংস্থা ইসরো। সব প্রস্তুতি শেষ। এমনটাই ঘোষণা করেছে ইসরোর স্যাটেলাইট সেন্টারের ডিরেক্টর মাইলস্বামী আন্নাদুরাই। তিনি জানিয়েছেন, সূর্যের দিকে ‘Aditya-L1’ পাঠাতে তৈরি ইসরো।

তিনি আরও জানিয়েছেন, এই সংস্থা আগামী তিন মাসে আরও চারটি গুরুত্বপূর্ণ স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণ করবে ইসরো। আর আগামী তিন বছরে মোট ৭০টি স্যাটেলাইট পাঠানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে ভারতের এই মহাকাশ গবেষণাগার।

ইসরো সূত্রে জানা গিয়েছে, করোনাল ও নিয়ার ইউভি স্টাডি করাই ইসরোর মূল লক্ষ্য। অন্ধ্রপ্রদেশের শ্রীহরিকোটা থেকে উৎক্ষেপণ করা হবে ওই স্যাটেলাইট। ৬ পেলোড সমেত মহাকাশে পাঠানো হবে এটিকে। পিএসএলভি ভেইকল থেকেই লঞ্চ করা হবে।

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী জানিয়েছেন, ‘মেক ইন ইন্ডিয়ার লক্ষ্যপূরণে সাহায্য করবে এই পদক্ষেপ।’