নয়াদিল্লি: সমুদ্রে অনেক গভীরে বিশেষ যানে করে মানুষ পাঠানোর পরিকল্পনা আগেই করেছিল ভারত। এবার সেই পরিকল্পনার দিকে আরও এক ধাপ এগোল গবেষকরা। যে ক্যাপসুলে পাঠানো হবে অভিযাত্রীদের, তার ডিজাইন তৈরি করে দিল ভারতের মহাকাশ গবেষণা সংস্থা ইসরো।

ভূ-বিজ্ঞান মন্ত্রকের সেক্রেটারি মাধবন নায়ার রাজীবন জানিয়েছেন, সমুদ্রে সম্পূর্ণ নিমজ্জিত হয়ে যাবে, এমন এট যানের ডিজাইন সফলভাবে বানিয়ে ফেলেছে ইসরো।’ জটিল প্রযুক্তি কাজে লাগিয়ে ওই ক্যাপসুল তৈরি করা হয়েছে বলে জানা গিয়েছে।

জানা গিয়েছে ইসরোর ওই ডিজাইন কোনও আন্তর্জাতিক এজেন্সিতে পাঠানো হবে। সেখান থেকে সার্টিফিকেশন হলে ভারতের ESSO-National Institute of Ocean Technology (NIOT) এই যান তৈরি করবে।

অত্যাধুনিক এই যানে চেপে সমুদ্রের তলায় ৬ কিলোমিটার পর্যন্ত যেতে পারবে মানুষ। একটি যানে তিন পর্যন্ত যেতে পারবে। সেখানে থাকা মূল্যবান খনিজের সন্ধানও করতে পারবে সহজেই। আরও অনেক প্রাণ আবিষ্কারও হতে পারে। এই যান তৈরি হলে বিশ্বের মাত্র কয়েকটি দেশের মধ্যে একটি হবে ভারত, যারা যানে চেপে সমুদ্রের তলায় যাওয়ার ক্ষমতা রাখে। বর্তমানে চিন, রাশিয়া, আমেরিকা, ফ্রান্স ও জাপানের হাতে এই ক্ষমতা রয়েছে।

একটি জাহাজ থেকে জলের তলায় ডুবে যাবে ওই যান। ৮ থেকে ১০ ঘণ্টা থাকতে পারবে সেখানে। একটি রোবোটিক হাত থাকবে যেটি সমুদ্রের তলদেশ থেকে বিভিন্ন স্যাম্পল নিয়ে আসতে পারবে। কাঁচ থেকে বাইরের দৃশ্য স্পষ্ট দেখা যাবে। বড় আকারের যান তৈরির আগে ৫০০ মিটার গভীরে যাওয়ার জন্য বছর তিনেকের মধ্যেই একটি ক্ষুদ্র আকারের যান তৈরি করা হবে।