ওয়াশিংটন: মার্কিন বিদেশ সচিব মাইক পম্পেও তার ইরানবিরোধী অবস্থান ঘোষণা করতে গিয়ে দাবি করেছেন, সংযুক্ত আরব আমিরাত ও ইসরায়েল ইরানবিরোধী জোট গঠন করতে সম্মত হয়েছে। ইরানের বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলে ধরতে গিয়ে পম্পেও রবিবার ওয়াশিংটনে জানিয়েছেন, ইরান গোটা মধ্যপ্রাচ্যসহ আমেরিকার নিরাপত্তার জন্য বড় ধরনের হুমকি হয়ে দাঁড়াচ্ছে।

তাঁর বক্তব্য, কোনওরকম হুমকি যাতে আমেরিকার উপকূলে পৌঁছাতে না পারে বা মধ্যপ্রাচ্যের কোনও দেশের ক্ষতি করতে না পারে সেজন্য নিজেদের মধ্যে সম্পর্ককে আরও বেশি শক্তিশালী করতে সম্মত হয়েছে আবু ধাবি ও তেল আবিব।মাইক পম্পেওর পক্ষ থেকে মার্কিন বিদেশ মন্ত্রণালয়ের টুইটার পেজে লেখা হয়েছে, এটি একটি ঐতিহাসিক মুহূর্ত।

আরও পড়ুন: আরব সাগরের নিখোঁজ নাবিকের‌ সন্ধান চালাচ্ছে মার্কিন নৌ বাহিনী

সংযুক্ত আরব আমিরাত গত ১৩ আগস্ট ইসরায়েলের সঙ্গে স্বাভাবিক কূটনৈতিক সম্পর্ক স্থাপনের ঘোষণা করে।আমেরিকার মধ্যস্থতায় তেল আবিব ও আবুধাবি এই সমঝোতায় পৌঁছে, চালু হয় বিমান পরিষেবা।

মধ্যপ্রাচ্যের একটি মুসলিম দেশকে মুসলিম বিরোধী ইসরায়েলের সঙ্গে গাঁটছড়া বাঁধতে উদ্বুদ্ধ করতে পেরে মার্কিন প্রশাসনিক কর্তাদের খুশির অন্ত নেই এবং তারা বিভিন্ন বক্তব্যের মাধ্যমে তাদের সেই উচ্ছ্বাস প্রকাশ করে যাচ্ছেন।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.